“কুলাউড়ায় শতাধিক ছাত্রীদের রোঁদে দাঁড় করিয়ে শাস্তি”…….!

কুলাউড়া প্রতিনিধি ::   মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার হাজীপুর বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে ছাতা নিয়ে না আসায় ছাত্রীদের শাস্তির প্রতিবাদে অভিভাবক ও এলাকাবাসীর ব্যানারে শনিবার (০৭ই এপ্রিল) মানববন্ধন হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বাড়ি থেকে ছাতা নিয়ে না আসায় গত ৫ই এপ্রিল সকালে হাজীপুর বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল মুক্তাদীর চৌধুরী বিভিন্ন শ্রেণির শতাধিক ছাত্রীকে রোদে দাঁড় করিয়ে রাখেন। এর কিছু সময় পর তাদের বিদ্যালয় থেকে বের করে দেন।

এর প্রতিবাদে শনিবার বেলা ১০টার দিকে বিদ্যালয়ের সামনে মানববন্ধন শুরু হয়।

এতে এলাকার অন্তত দুই শতাধিক অভিভাবকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার লোকজন অংশ নেন।

প্রায় এক ঘন্টা ব্যাপী এ কর্মসূচীতে বক্তব্য রাখেন- অভিভাবক চেরাগ আলী, খাতুন বিবি, জয়নব বিবি, আবদুর রহমান, সাতির আলী, রহমত আলী সরদার, নওশাদ আলী প্রমুখ।

এ সময় বক্তারা বলেন, বিদ্যালয়ে অনেক গরিব পরিবারের মেয়েরা লেখাপড়া করে। তাদের ছাতা কেনার সাধ্য নেই। কিন্তু, প্রধান শিক্ষকের আচরণে তারা কষ্ট পেয়েছে। অভিভাবকেরাও কষ্ট পেয়েছেন।

প্রধান শিক্ষক আবদুল মুক্তাদীর চৌধুরী বলেন, ‘আসলে আমাদের এলাকায় (হাজীপুর) ঝড়বৃষ্টি বেশি হয়। তাই, ছাত্রীদের ছাতা আনতে একটু শাসন করেছিলাম। কিন্তু, এটা হিতে বিপরীত হয়ে গেছে।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) চৌধুরী মো. গোলাম রাব্বী বলেন, ‘ঘটনাটি শুনেছি। হেডমাস্টারের (প্রধান শিক্ষক) সঙ্গে কথা হয়েছে। ছাতা আনার বিষয়টি সুন্দরভাবে তিনি বুঝাতে পারতেন। কিন্তু, যেটা করেছেন তা ঠিক করেননি। তাঁকে ভবিষ্যতে এ ধরনের আচরণ না করতে বলেছি।

Sharing is caring!

Loading...
Open