কানাইঘাটে সন্তানের মুখ দেখা হলো না প্রবাসী পিতার

কানাইঘাট প্রতিনিধি::           কানাইঘাটে সন্তানের মুখ দেখা হলো না প্রবাসী খলিবুল ইসলামের। তিনি পৌরসভাস্থ বায়মপুর বদিকোনা গ্রামের মৃত শফিকুল হকের পুত্র। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, একটি উন্নত জীবনের আশায় দীর্ঘ এক যুগ ধরে তিনি সৌদি আরবে কাজ করছেন। গত ৩১ শে মার্চ বার্ধক্যজনিত কারনে সেখানে মারা যান। হঠাৎ তাঁর এমন মৃত্যুতে গ্রামের বাড়ীতে শোকের ছায়া নেমে আসে।

আগামীকাল শুক্রবার তার লাশ গ্রামের বাড়ীতে নিয়ে আসার কথা রয়েছে। তাঁর লাশ আসার খবর জানতে পেয়ে তাকে একনজর দেখতে আত্মীয় স্বজন ও গ্রামের লোকজন বাড়ীতে ভীড় করতে শুরু করেছেন। জানা যায়, দীর্ঘ প্রবাসী জীবনের এই সময়ে তিনি কয়েকবার দেশে ছুটি কাটেন। এরই মধ্যে প্রায় ৬ বছর পূর্বে তিনি বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। সাংসারিক জীবনে ক্ষুদ্র এই সময়ে তার ঘরে চলে আসে সুলতান মাহমুদ (৪)নামের এক ফুটফুটে ছেলে সন্তান। গত ছুটির পর তিনি তার কর্মস্থলে যেতে না যেতেই তার সংসারে সাড়ে ৩ মাসের ফাহমিদা নামের এক কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। তার কন্যা সন্তানটির মুখ দেখার জন্য তিনি সপ্তাহ খানেক আগে দ্রুত দেশে ছুটি কাটাতে স্ত্রীর কাছে ফোনে জানিয়েছিলেন, কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে সন্তানের মুখ দেখা হয়নি তার। স্ত্রী-সন্তানদের আকুতিতে তার লাশ আজ দেশে আনা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন মরহুমের ভাই নজরুল ইসলাম।

Sharing is caring!

Loading...
Open