পৌর বিপনী কেন্দ্র দোকান মালিক ব্যবসায়ী সমিতির ব্যাখ্যা ও অভিনন্দন

‘অন্ধকার পল্লীতে মেয়র আরিফের অভিযান’ সম্পর্কে আজ আপনার সম্পাদিত দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত খবরটি আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। উক্ত সংবাদের তথ্য গত মারাত্মক ভুল রয়েছে। প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে- ‘সিটি করপোরেশনের মালিকানাধীন পৌর বিপনী কেন্দ্রের দ্বিতীয় তলায় দীর্ঘ দিন ধরে দেহ ব্যবসা চলছে।’ কিন্তু পৌর বিপনী মার্কেটের দ্বিতীয় কোনো মার্কেটই নেই এবং এখানে কোনো অবৈধ ব্যবসা চলেনি। প্রকৃতপক্ষে পৌর বিপনী কেন্দ্রে পাশ্ববর্তী খালের উপর অবৈধভাবে নির্মিত সন্ধ্যাবাজারের দ্বিতীয় তলায় দীর্ঘ দিন যাবত নানা রকম অবৈধ ও বেআইনী কার্যকলাপ চলছে। মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী গত সোমবার এই সন্ধ্যাবাজারেই অভিযান পরিচালনা করেন। সিটি করপোরেশনের মালিকানাধীন পৌর বিপনী কেন্দ্রে দীর্ঘ দিন যাবত বিভিন্ন বৈধ ব্যবসা চলছে ও দোকানপাঠ রয়েছে। এখানকার ব্যবসায়ীদের সংগঠন পৌর বিপনী কেন্দ্র দোকান মালিক ব্যবসায়ী সমিতি’ অনেক দিন থেকেই অবৈধভাবে নির্মিত সন্ধ্যাবাজারের বেআইনী কার্যকলাপ বন্ধ করার আপ্রান চেষ্টা করেছে। এজন্য প্রশাসন ও সিটি করপোরেশনে অনেক লিখিত আবেদন-নিবেদন করা হয়। কিন্তু অবৈধভাবে নির্মিত সন্ধ্যাবাজারে অবৈধ কার্যকলাপ বন্ধে কার্যকর কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। অবশেষে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী এ ব্যাপারে বাস্তব পদক্ষেপ নিয়ে অবৈধ সন্ধ্যাবাজার ভেঙ্গে-গুড়িয়ে দেওয়ায় তাকে আন্তরিক অভিনন্দন জানাচ্ছি। একই সাথে এই অবৈধ বাজার গুড়িয়ে দেওয়ায় সিলেট জেলা ব্যবসায়ী ঐক্য কল্যান পরিষদের সভাপতি আলহাজ¦ মকন মিয়াকেও অভিনন্দন জ্ঞাপন করছি। –বিজ্ঞপ্তি

Sharing is caring!

Loading...
Open