“কলেজ ছাত্রীকে উত্যক্তের জের ধরে ছাতকে সংঘর্ষ, আহত শতাধিক”

ছাতক প্রতিনিধি ::   সিলেটের  সুনামগঞ্জ জেলার ছাতকে এক কলেজ ছাত্রীকে উত্যক্ত করার ঘটনাকে কেন্দ্র করে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে মহিলাসহ শতাধিক লোক আহত হয়েছেন।

এদের মধ্যে গুরুতর আহত সমুজ আলী (৫০), ফরিদ মিয়া (৪৮), আলমগীর (৩৭), কালা মিয়া (৪০), রফিক (৩২), আনোয়ার (৩৫) সহ ১০জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আজ বুধবার (২৮শে মার্চ) বিকালে উপজেলার কালারুকা ইউনিয়নের শিমুলতলা গ্রামে এঘটনা ঘটে।

অন্যান্য আহতদের মধ্যে মঈন উদ্দিন (৪০), উজ্জল (১১), বাবুল মিয়া (৫১), মিনহাজ (২১), শর্ফিক আলী (৫৫), আলীম (৩৫), হোসাইন (২০), জুনেদ (১৯), জুনাইদ (১৭), আক্তার হোসেন (২০), রহিমা বেগম (৪০), আবিদ (১৬), মনসুর (১৭), আনোয়ার (২৫), আব্দুন নুর (৫২) সহ আহতদের ছাতক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা যায়, ছাতক উপজেলার কালারুকা ইউনিয়নের শিমুলতলা মিরাপাড়া গ্রামের দৌলত মিয়ার মেয়েকে ছাতক ডিগ্রি কলেজের ছাত্রীকে একই গ্রামের বতুল্লার পুত্র হোসাইন কলেজে আসা-যাওয়ার পথে দীর্ঘদিন যাবৎ উত্যক্ত করে আসছিল। আজ বুধবার বিকেলে কলেজ থেকে ফেরার পথে হোসাইন কলেজ ছাত্রীকে উত্যক্ত করলে উভয় পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটির ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনার জের ধরে সন্ধ্যায় উভয় পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। প্রায় দু’ঘন্টা ব্যাপী সংঘর্ষে মহিলাসহ শতাধিক লোক আহত হয়।

খবর পেয়ে ছাতক থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

এ ব্যাপারে ছাতক থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আতিকুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকারে বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আছে। থানায় এখনো কোন মামলা হয়নি।

Sharing is caring!

Loading...
Open