ইসকন সিলেটে ব্যাসপূজা মহোৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সম্পন্ন

আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘ (ইসকন) সিলেটে শ্রীল জয়পতাকা স্বামী গুরু মহারাজের ৬৯তম আবির্ভাব তিথি ব্যাসপূজা মহোৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সম্পন হয়েছে। দুই দিনের এই উৎসব বুধবার বিভিন্ন আয়োজনে সম্পন্ন হয়। বিকালে ‘কে এই শ্রীল প্রভুপাদ’ বানীর মোড়ক উম্মোচন করেন সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।

এ সময় তিনি ইসকনের বিভিন্ন দিকের প্রশংসা করে বলেন, ইসকনের দুপুরের প্রসাদ আমার কাছে খুবই ভালো লাগে। ইসকনের যে কোনো ধরণের সহযোগিতায় তিনি পাশে থাকবেন বলে জানান। এর আগে ইসকন ভক্তরা ৬৯ কেজি কেক কেটে জয়পতাকা স্বামী গুরু মহারাজের ৬৯তম আবির্ভাব তিথি পালন করেন। নগরীর কাজলশাহস্থ যুগলটিলা মন্দিরে ইসকন বাংলাদেশের সহ-সভাপতি ও সিলেটের অধ্যক্ষ নবদ্বীপ দ্বিজ গৌরাঙ্গ দাস ব্রহ্মচারীর সভাপতিত্বে ও দেবর্ষি শ্রীবাস দাসের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, মায়াপুর ইনস্টিটিউটের শিক্ষক পতিত উদ্ধারণ দাস ব্রহ্মচারী, প্রাণ গোবিন্দ দাস, ইসকন সিলেটের কমান্ডার ঈষাণ নিমাই দাস ব্রহ্মচারী প্রমুখ। মহোৎসবে মহাভোগ আরতি, অফারিং লেটার পাঠ, মহাপ্রসাদ বিতরণ করা হয়।

ইসকনের অন্যতম জিবিসি দীক্ষাগুরু শ্রীল জয়পতাকা স্বামী গুরু মহারাজন ১৯৪৯ সালের ৯ এপ্রিল আমেরিকার উইসকনসিন প্রদেশের মিলওয়েকি অঞ্চলে জন্ম গ্রহণ করেন। স্নাকোত্তর ডিগ্রি নেওয়ার পর তিনি ইসকনে যোগদান করেন এবং এখনো নিরলসভাবে বিশ্বব্যাপি কৃষ্ণভাবনামৃত আন্দোলনের প্রচার ও প্রসার করে যাচ্ছেন। – বিজ্ঞপ্তি

Sharing is caring!

Loading...
Open