গোলাপগঞ্জে ২ চেয়ারম্যানসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা……..

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোলাপগঞ্জ::       সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলা তাঁতীলীগ’র যুগ্ন-আহবায়ক মো. আলী হোসেনের উপর সন্ত্রাসী হামলা ও তার বাড়িতে লুটপাটের ঘটনায় অবেশেষ সিলেট আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

গত রোববার (২৫শে মার্চ) সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ১ম আদালত সিলেট এ দায়ের করা মামলা নং- ৭১/২০১৮। মামলায় দুই উপজেলার প্রভাবশালী দুই চেয়ারম্যানসহ ৮ বিএনপি নেতাকে আসামী করা হয়েছে। আদালত বাদীর অভিযোগটি আমলে নিয়ে সিলেট পিবিআই পুলিশকে আগামী ১৯ এপ্রিলের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।

জানা যায়, সিলেট জেলার গোলাপগঞ্জ উপজেলার ধারাবহর এলাকায় দীর্ঘ দিন থেকে একটি সঙ্গবদ্ধ চক্র মাদক ব্যবসাসহ অসামাজিক কার্যকলাপ করে আসছিলো। সম্প্রতি সময়ে এসব ব্যবসা আর অসামাজিক কাজে বাঁধা হয়ে উঠেন উপজেলা তাঁতী লীগের যুগ্ন আহবায়ক ধারাবহর গ্রামের মৃত নছির আলীর ছেলে মো.আলী হোসেন।

তাই গত ১৮ই মার্চ দিবাগত রাতে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে নিজ বসত ঘরে ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় বিয়ানীবাজার উপজেলার ১নং আলীনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান যুবদল নেতা মামুনুর রশিদ মামুন ও গোলাপগঞ্জ উপজেলার ৯নং আমুড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা রুহেল আহমদ এর নির্দেশে ধারাবহর গ্রামের ফজলু মিয়ার ছেলে একলাই মিয়াসহ ১০/১৫ জনের একটি সঙ্গবদ্ধচক্র ঘুমন্ত আলী হোসেনের উপর হামলা চালায়। তাকে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে রক্তারক্ত জখম করার পাশাপাশি ঘরে লুটপাট করে হামলাকারীরা।

সে সময় নগদ ১লক্ষ টাকা, ১টি মোবাইল ফোনসহ জায়গা জমির দলীলাদি এবং মূল্যবান কাগজপত্র নিয়ে পালিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা। এসময় আলী হোসেন চিৎকারে তার পরিবারের লোকজন তাকে রক্ষায় জন্য এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা তাদেরকেও মারধর করে।

ঘটনার খবর পেয়ে স্থানীয় মেম্বার আমান আহমদসহ এলাকার লোকজন এসে আহত আলী হোসেনকে উদ্ধার করে গোলাপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। হামলার খবর পেয়ে রাতেই উপজেলা তাঁতীলীগের নেতৃবৃন্দ ঘটনাস্থল আলী হোসেনের বাড়িতে গিয়ে ঘটনার বিবরণ শুনে গোলাপগঞ্জ থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নেন।

পরদিন আলী হোসেন লোক মারফত থানায় একটি এজাহার পাঠালে এজাহারটি রিসিভ করে রাখা হয়, যাহার রিসিভ নং-৩০২(১৯-০৩-২০১৮) কিন্তু অদৃশ্য শক্তির বদৌলতে এজাহারটি এফআইআর না হওয়ায় বাধ্য হয়ে রোববার সিলেট সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্টেট ১ম আদালতে একটি সি.আর মামলা দায়ের করেন তিনি। মামলা নং-৭১/২০১৮। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে আগামী ১৯/৪/১০১৮ ইং তারিখের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সিলেটস্থ পিবিআই পুলিশকে নির্দেশ প্রদান করেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open