গৃহবধূকে ৩দিন আটকে রেখে ধর্ষণ, ধর্ষকসহ ০২ জন গ্রেফতার

সুরমা টাইমস ডেস্ক::  টানা ৩দিন আটকে রেখে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বাসুদেবপাড়া গ্রামের এক গৃহবুধকে (১৯) ধর্ষণ করার অভিযোগে পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে ধর্ষিতা গৃহবধু বাদি হয়ে ধর্ষক জাকির হোসেন (৩২) ও তার সহযোগী লোকমান সরদারকে (৩৩) আসামি করে বুধবার রাতে গৌরনদী থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছে। পুলিশ তাংক্ষনিক অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত ধর্ষক জাকির হোসেন ও তার সহযোগী লোকমান সরদারকে গ্রেফতার করেছে। বিষয়টি গৌরনদী মডেল থানার ওসি মুনিরুল ইসলাম মুনির নিশ্চিত করেছেন।

ওই গ্রামের ধর্ষিতা গৃহবধু জানায়, তার স্বামী দীর্ঘদিন ধরে ঢাকায় ক্ষুদ্র ব্যবসা করে আসছে। আগৈলঝাড়া উপজেলার গৈলা গ্রামের তার (গৃহবধু) বাবার বাড়িতে বেড়ানো শেষে স্বামীর বাড়িতে যাবার উদ্দেশ্যে রওনা দিয়ে গত ১৭ই মার্চ সন্ধ্যা ৬টার দিকে গৌরনদী বাসস্ট্যান্ডে এসে পৌছে। সেখানে ভাড়ায় চালিত মোটর সাইকেল চালক প্রতিবেশী চাচাতো শ্বশুড় লোকমান সরদারের (৩৩) সাথে দেখা হয়। তখন লোকমান মোটর সাইকেলে তাকে (গৃহবধুকে) স্বামীর বাড়িতে পৌঁছে দেয়ার কথা বলে তার মোটর সাইকেলে উঠায়। তাকে বহনকারী মোটর সাইকেলটি পথিমধ্যে মাহিলাড়া এলাকায় পৌছলে প্রতিবেশী বাসুদেবপাড়া গ্রামের মৃত হাসেম হাওলাদারের পুত্র জাকির হোসেনের (৩২) সাথে দেখা হয়।

এ সময় জাকির বাড়িতে যাবার কথা বলে মোটর সাইকেলে ওঠে। এ সময় তারা তাকে (গৃহবধুকে) ফুঁসলিয়ে তাদের এক বন্ধু’র বাড়ি বাবুগঞ্জের রহমতপুর গ্রামের অজ্ঞাতনামা বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে (গৃহবধুকে) তিনদিন আটকে রেখে জাকির হোসেন জোরপূর্বক কয়েকবার তাকে (গৃহবধুকে) ধর্ষণ করে।গত ২০শে মার্চ সন্ধ্যায় ধর্ষক জাকির হোসেন ও তার সহযোগী লোকমান রাতের খাবার আনতে গেলে এ সুযোগে গৃহবধু বন্দিদশা থেকে পালিয়ে বাড়িতে আসে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা থানার এস.আই মোশারফ হোসেন জানান, মামলা দায়েরের পর তিনি সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে গত বুধবার দিবাগত রাতে উপজেলার বাসুদেবপাড়া গ্রামে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত ধর্ষক জাকির হোসেন ও তার সহযোগী লোকমান সরদারকে গ্রেফতার করেন। ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য ধর্ষিতাকে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের গতকাল দুপুরে বরিশাল অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হলে আদালতের বিচারক তাদেরকে বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রেরন করেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open