অপারেশন থিয়েটারে জাফর ইকবাল – যেভাবে হামলা

সুরমা টাইমস ডেস্কঃ সিলেটে শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালানো হয়েছে অধ্যাপক জাফর ইকবালের উপর। আহত ড. জাফর ইকবালের সিটি স্ক্যান করা হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাঁর মাথার সিটি স্ক্যান করা হয়েছে। ওসমানী হাসপাতালের চিকিৎসকদের কাছ থেকে এমন তথ্য জানা গেছে।
চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, সিটি স্ক্যানের প্রতিবেদন পাওয়ার পর জাফর ইকবালের মাথার আঘাত কতোটা গুরুতর তা জানা যাবে। শাবিতে ছুরিকাঘাতে আহত ড. জাফর ইকবাল ‘শঙ্কামুক্ত’ বলে জানিয়েছেন একজন চিকিৎসক। ওসামানী হাসপাতালের ওই চিকিৎসক শনিবার পৌনে ৭টায় এমন তথ্য জানান। তিনি আরো জানান, জাফর ইকবালের মাথায় অস্ত্রোপচার প্রয়োজন কিনা, তা এখনও পুরো নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না।

শনিবার (৩ মার্চ) বিকাল ৫টা ৪০ মিনিটের দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চে ইলেকট্রিকাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) ফেস্টিভ্যালের সমাপনী অনুষ্ঠান চলাকালে এ হামলার শিকার হন তিনি। হামলার পরপরই তাকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। বর্তমানে তাঁকে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

শাবিপ্রবি’র ইলেকট্রিকাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোহাম্মদ কামরুজ্জামান খান জানান, শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিকাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগে ফেস্টিভ্যাল চলছিল ক্যাম্পাসের মুক্তমঞ্চে। এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অধ্যাপক জাফর ইকবাল। সেই উৎসবে অংশ নিয়ে অন্যদের সঙ্গে মুক্তমঞ্চে বসে ছিলেন মুহাম্মদ জাফর ইকবাল। সন্ধ্যার ৫টা ৪০ মিনিটের দিকে এক ২৪-২৫ বছরের হালকা দাড়িওয়ালা একটি যুবক হঠাৎ পেছন থেকে তাঁর মাথায় ছুরিকাঘাত করেন। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। দ্রুত তাঁকে উদ্ধার করে পুলিশের একই মাইক্রোবাসে করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে তাঁর মাথায় আঘাত থাকায় থাকে ওসমানী হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়া হয়।

এদিকে, হামলাকারী ওই যুবককে আটক করে গণপিটুনি দিয়েছেন উপস্থিত শিক্ষার্থীরা। ওই যুবককে এখন আটক করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ভবনে রাখা হয়েছে। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী না বহিরাগত সে সম্পর্কে এখনো কিছু জানা যায়নি এবং কী কারণে এই হামলা চালিয়েছে, সে বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কিছুই জানা সম্ভব হয়নি।

Sharing is caring!

Loading...
Open