ভোলাগঞ্জে পাথর কোয়ারিতে গর্ত ধসে চার শ্রমিকের মৃত্যু

সুরমা টাইমস ডেস্কঃ সিলেটের কোম্পানিগঞ্জের ভোলাগঞ্জে পাথর কোয়ারিতে মাটি চাপায় চার শ্রমিক নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন কমপক্ষে তিনজন। রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার ভোলাগঞ্জের হাজিরডেগনা এলাকার সীমান্ত এলাকায় এ দুর্ঘটনাটি ঘটে।

এ ঘটনায় আহত হয়েছেন কমপক্ষে তিনজন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে এ ঘটনায় পাথর উত্তোলনে সংশ্লিষ্ট থাকায় আব্দুর রউফ নামে একজনকে আটক করেছে।

পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার ভোলাগঞ্জের হাজিরডেগনা এলাকার সীমান্ত এলাকায় এ দুর্ঘটনাটি ঘটে। দুর্ঘটনায় সাথে সাথে ২ জন নিহত হন। তবে আজ সকাল ১১টার দিকে কোয়ারীতে অভিযান চালিয়ে আরো দুটি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার অভিযান চলছে। নিহতের সংখ্যা বাড়তে পারে।

নিহতরা হলেন, সুনামগঞ্জের মুরাদপুর এলাকার আসকর আলীর ছেলে রুহুল আমিন (২২) ও একই এলাকার হযরত আলীর ছেলে মতিবুর (৩২)। তবে সকালে উদ্ধার হওয়া লাশের এখনো পরিচয় পাওয়া যায়নি।

এ ঘটনায় আহত হয়েছেন রুহেল (১৮), রফিকুল (১৬) ও ফিরোজ আলী(৪৫)। এদের মধ্যে ফিরোজ আলীল অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।

মোট ৪জনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে কোম্পানীগঞ্জ থানা ওসি (তদন্ত) দিলিপ নাথ জানান, গতকাল রাতে ২জনের লাশ উদ্ধার করে ওসমানী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আজ সকালে আরো দুটি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। পোস্টমর্টেমের জন্য লাশ দুটি হাসপাতালে প্রেরণ করা হবে। দুর্ঘটনায় আহতদের উদ্ধার করে  কোম্পানীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় আব্দুর রউফ নামে এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে এ দুর্ঘটনায় হতাহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে স্থানীয়রা ধারণা করছেন। দুর্ঘটনাকবলিত গর্ত উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলী আমজদের মালিকানাধীন বলে জানা গেছে।

স্থানীয় একটি সূত্র জানা যায়, ভোলাগঞ্জ কোয়ারির হাজিরডেগনা এলাকায় রাতে জেনারেটর চালিয়ে পাথর উত্তোলন করা হচ্ছিল। রাত সাড়ে ৯টায় গর্ত ধসে এ প্রাণহানির ঘটনা ঘটে।

Sharing is caring!

Loading...
Open