জাতির ক্রান্তিলগ্নে মহানগরের তৃনমূল বিএনপিকে সুসংগঠিত করতে হবে

সিলেট মহানগর বিএনপির জরুরী সভায় বক্তারা

সিলেট মহানগর বিএনপি নেতৃবৃন্দ বলেছেন- দেশ জাতি চরম ক্রান্তিকাল অতিবাহিত করছে। বাকশালীদের হিং¯্র থাবায় দেশের গণতন্ত্র আজ ক্ষত-বিক্ষত। জাতির এই ক্রান্তিলগ্নে সিলেট মহানগর এবং প্রতিটি ওয়ার্ড বিএনপি, অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের মধ্যে সমন্বয় সৃষ্ঠির মাধ্যমে সাংগঠনিক কার্যক্রমকে সুসংহত করতে হবে। নিজেদের মধ্যে সকল দ্বিধা-দ্বন্দ বিভেদ ভুলে দলীয় কার্যক্রমে সবার অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার মাধ্যমে দেশের বিধ্বস্ত গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনা সম্ভব হবে। ষড়যন্ত্রমুলক মামলার ফরমায়েসী রায়ে কারান্তরীণ দেশের গণতন্ত্রের মা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে রাজপথে নামতে হবে।

গতকাল রবিবার সিলেট মহানগর বিএনপির কার্যনির্বাহী কমিটির এক জরুরী সভায় বক্তারা উপরোক্ত কথা বলেন। মহানগর সভাপতি নাসিম হোসাইনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিমের পরিচালনায় নগরীর সোবহানীঘাটস্থ আগ্রা কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত জরুরী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্ঠা ও মহানগর বিএনপির কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য আলহাজ্ব এম. এ হক। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্ঠা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আলহাজ্ব এম. এ হক বলেন- আওয়ামী ফ্যাসিষ্ট তাবেদারী সরকার আবারো বিনাভোটের প্রহসনের নির্বাচন দিয়ে গদি দখলের ষড়যন্ত্র করছে। এই ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে গণতন্ত্রের মা, তিন বারের সাবেক সফল প্রধানমন্ত্রী বিএনপি চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে ষড়যন্ত্রমুলক মামলার ফরমায়েসী রায়ে কারাগারে আটকে রেখেছে। কিন্তু শহীদ জিয়ার সৈনিকেরা বেচে থাকতে বেগম খালেদা জিয়াকে ছাড়া বাংলাদেশে কোন নির্বাচন হতে দেয়া হবেনা।

খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির বলেন- দেশ ও দেশের মানুষ আজ ভাল নেই। গণতন্ত্রের ফিনিক্স পাখি আপোষহীন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে এদেশের মুক্তিকামী মানুষ ভাল থাকতে পারেনা। বাংলাদেশের গণতন্ত্র ও বেগম খালেদা জিয়া একই সুত্রে গাথা। বেগম খালেদা জিয়াকে ছাড়া কোন নির্বাচন এদেশে হবেনা। হতে দেয়া হবেনা। সময়ের অপরিহার্য দাবীর প্রেক্ষিতে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে ময়দানে ঝাপিঁয়ে পড়তে হবে।

জরুরী সভায় মহানগর বিএনপির উপদেষ্ঠা পরিষদের সদস্য, কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য, ২৭টি ওয়ার্ডের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদক ছাড়াও বিএনপি অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় বক্তব্য রাখেন- মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম জালালী পংকী, ১নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক জেবুল হাসান ফাহিম, ২নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন মজুমদার, ৩নং ওয়ার্ডের সিনিয়র সহ-সভাপতি সালেহ আহমদ, ৪নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক সেলিম জালালাবাদী, ৫নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক আমিনুর রহমান খোকন, ৬নং ওয়ার্ডের সভাপতি লুৎফুর রহমান, ৭নং ওয়ার্ডের সভাপতি লল্লিক আহমদ চৌধুরী, ৮নং ওয়ার্ডের সভাপতি আব্দুল হাদী মাসুম, ৯নং ওয়ার্ডের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান, ১০নং ওয়ার্ডের সভাপতি হাজী সাইদুর রহমান বুদুরি, ১১নং ওয়ার্ডের সভাপতি আমিনুর খোকন, ১২নং ওয়ার্ডের সভাপতি আফতাবুর রহমান বকুল, ১৩নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক বেলাল আহমদ, ১৪নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক জিয়াউর রহমান দীপন, ১৫নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক শেখ মু. ইলিয়াস আলী, ১৬নং ওয়ার্ডের সভাপতি মোস্তাক আহমদ, ১৭নং ওয়ার্ডের সভাপতি আব্দুল কাহির, ১৮নং ওয়ার্ডের সাংগঠনিক সম্পাদক সালেহ আহমদ তারেক, ১৯নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক মওদুদুল হক, ২০নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল গফফার, ২১নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলার আব্দুর রকিব তুহিন, ২২নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক আবুল ফাত্তাহ বকশী, ২৩নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক মামুনুর রহমান মামুন, ২৪নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক নোমান আহমদ, ২৫নং ওয়ার্ডের সভাপতি মোতাহির আলী মাখন, ২৬নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক সেলিম আহমদ রনি, ২৭নং ওয়ার্ডের সাংগঠনিক সম্পাদক উজ্জল রঞ্জন চন্দ, মহানগর কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান পুতুল, শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক ইউনুছ মিয়া, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদিকা নিগার সুলতানা ডেইজী, জাসাস এর সাধারণ সম্পাদক তাজ উদ্দিন মাসুম প্রমুখ।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- মহানগর সহ-সভাপতি সালেহ আহমদ খসরু, রেজাউল হাসান কয়েস লোদী, বাবু নিহার রঞ্জন দাস, অধ্যাপিকা সামিয়া বেগম চৌধুরী, জিয়াউল হক, আব্দুস সাত্তার, শাব্বির আহমদ বাচ্চু, সুদীপ রঞ্জন সেন বাপ্পু, উপদেষ্ঠা আব্দুল আলীম দিপক, কয়সর রশিদ চৌধুরী, সৈয়দ বাবুল হোসেন, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আজমল বখত চৌধুরী সাদেক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমদ সিদ্দিকী, এডভোকেট আতিকুর রহমান সাবু, হুমায়ুন আহমদ মাসুক, মাহবুব কাদির শাহী, আলী হোসেন বাচ্চু, সাংগঠনিক সম্পাদক মুর্শেদ আহমদ মুকুল, প্রচার সম্পাদক শামীম মজমুদার, কোষাধ্যক্ষ এডভোকেট আবুল ফজল, ক্রীড়া সম্পাদক রেজাউল করিম নাচন, আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট রুখসানা বেগম শাহনাজ, বিএনপি অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠন নেতৃবৃন্দের মধ্যে লোকমান আহমদ, ডা: আশরাফ আলী, ইউনুছ মিয়া, খালেদুর রশিদ ঝলক, সোহাদ রব চৌধুরী, খসরুজ্জামান খসরু, আলকাছ মিয়া, নুরুল মোমিন খোকন, মোস্তাক উদ্দিন আহমদ, মিনারা হোসেন, তানিয়া রহমান, রায়হান বক্স, আব্দুস সামাদ তুহেল, নাসিম আহমদ চৌধুরী, কাজী নইমুল আলম, আব্দুল জব্বার তুতু, ফাহাদ উদ্দিন মুরাদ, আলমগীর হোসেন, সাব্বির আহমদ, আবুল কালাম, আব্দুর রহিম মল্লিক, আলী হোসেন মুক্তার, আব্দুর রহিম, মো: সেলিম খান, ফয়জুল ইসলাম সুমন, শাহিন মিয়া, নিগার সুলতানা ডেইজী, নুরুন নাহার মজুমদার, রিনা আক্তার, আফজাল উদ্দিন, ইসরাইল লস্কর, লুৎফুর রহমান চৌধুরী, রেহানা ফারুক শিরিন, আলী হায়দার মঞ্জু, আব্দুস সোবহান, কামরুল হাসান, নাসির উদ্দিন রব, শফিক নুর, সালা উদ্দিন, মজিবুর রহমান রুবেল, নাজির আহমদ, সৈয়দ ফয়েজ আহমদ, দিলোয়ার হোসেন রানা, রুম্মান আহমদ, সাইদুর রহমান, সেলিম আহমদ মাহমুদ, সৈয়দ আব্দুল হাদী মাসুম, মুন্না চৌধুরী, হেলাল মিয়া, তারেক আহমদ খান, তুহেলুর রহমান শিপন, এনামুল কুদ্দুছ চৌধুরী, সবুর আহমদ, আব্দুস সহিদ, আব্দুল হামিদ, শাখাওয়াত হোসেন খান শিপলু, সোয়েব বাছিত, নুরুল ইসলাম লিমন, এম মখলিছ খান, কয়েস আহমদ সাগর, ময়নুল হক স্বাধীন, সিরাজ খান, আপ্তাবুর রহমান বাবুল, জাবেদ খান, মসরুর আহমদ, জামাল আহমদ খান, সাহেল আহমদ নয়ন, হাসান আহমদ রাহেল, আমিনুর রশীদ খোকন, শেখ কবির আহমদ, খালেদ আহমদ, জগলুল ইসলাম, এম, শহিদ সমীর, আব্দুল খালিক, মুফতী রায়হান উদ্দিন মুন্না, ফয়ছল আহমদ, আব্দুর রাজ্জাক, মির্জা লিটন আহমদ, দেলওয়ার হোসেন চৌধুরী, মাসুম ইফতেখার রসুল শিহাব, সবুজ আহমদ, দেলোয়ার হোসেন, সৈয়দ সেলিম, জায়েদুর রহমান, রানা আহমেদ রুস্তুম, মো: মোস্তাক আহমদ, এ. আর রাসেল, আব্দুল হালিম ও আমির আলী প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি

Sharing is caring!

Loading...
Open