শিক্ষা বিভাগের ‘ক্ষমতাবান’ ৩০ কর্মকর্তাকে বদলি

সুরমা টাইমস ডেস্ক::   দুর্নীতি-ঘুষের দায়ে অভিযুক্ত ও বছরের পর বছর একই জায়গায় চাকরি করা শিক্ষা বিভাগের বিভিন্ন দফতর ও সংস্থার ক্ষমতাবান ৩০ কর্মকর্তাকে বদলি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। আজ বৃহস্পতিবার তাদের বিভিন্ন স্থানে বদলি করে পরিপত্র জারি করা হয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্যমতে, শিগগিরই আরও কয়েকজনকে বদলি করা হবে।

সম্প্রতি শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা (পিও) মোতালেব এবং উচ্চমান সহকারী মো. নাসির উদ্দিনকে ঘুষ ও দুর্নীতির অভিযোগে গ্রেফতারের পর অন্য কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দুর্নীতি নিয়েও আলোচনা শুরু হয়। এরমধ্যে প্রশ্নফাঁসের ঘটনায় শিক্ষা মন্ত্রণালয় ভাবমূর্তি চরম সংকটে পড়েছে। মূলত হারানো ভাবমূর্তি রক্ষার জন্য অভিযোগ থাকা এবং একই পদে দীর্ঘদিন কর্মরত কর্মকর্তাদের সরিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এরই আলোকে ৩০ জনকে বদলি করা হয়েছে। বদলিকৃত কর্মকর্তাদের মধ্যে সাতজন ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের কর্মরত রয়েছেন। তারা হলেন ঢাকা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক আশফাকুস সালেহীন, বিদ্যালয় পরিদর্শক এ টি এম মঈনুল হোসেন, উপ পরিচালক ফজলে এলাহী, উপ সচিব মোহাম্মদ নাজমুল হক, উপ পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাসুদা বেগম, উপ কলেজ পরিদর্শক ও শিক্ষামন্ত্রীর সাবেক একান্ত সহকারী সচিব মন্মথ রঞ্জন বাড়ৈই এবং উপ পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অদ্বৈত কুমার রায়।

বদলি হওয়া মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের কর্মকর্তারা হলেন, তদারক ও মূল্যায়ন শাখার পরিচালক মো. সেলিম, উপ পরিচালক মেসবাহ উদ্দিন সরকার, এস এম কামাল উদ্দিন হায়দার, শফিকুল ইসলাম সিদ্দিকি, খ ম রাশেদুল হাসান, সহকারী পরিচালক জাকির হোসেন, মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন। বাকিরা জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডসহ বিভিন্ন দফতরে কর্মরত।

এসব কর্মকর্তাদের মধ্যে কেউ কেউ ১৫-২০ বছর ধরে একই জায়গায় চাকরি করছেন। কেউ কেউ প্রভাষক থেকে অধ্যাপক হয়েছেন একই সংস্থায় থেকে। কেউ কেউ আবার পদোন্নতি পেলেও শুধু এক স্থানে থাকার জন্য নিচের স্তরে চাকরি করছেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open