বিশ্বনাথে স্কুল কমিটি নিয়ে হামলা পাল্টা হামলায় ০৬জন আহত

নিজস্ব প্রতিনিধি::     সিলেটের বিশ্বনাথে পিএমসি একাডেমী এন্ড হাইস্কুলের কমিটি নিয়ে বিরোধ তুঙ্গে। এরই জের ধরে স্কুলের শহীদ মিনারে ফুল দেয়া নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে বাক বিতন্ডা হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের হামলা ও পাল্টা হামলায় ৫জন আহত হয়েছেন।

এক পক্ষে রয়েছেন স্কুলের প্রাক্তণ ছাত্র কল্যাণ পরিষদের সাবেক সভাপতি আ’লীগ নেতা জহরুল হোসেন জহির আর অন্য পক্ষে রয়েছেন স্কুল পরিচালনা কমিটির বর্তমান সভাপতি কাইয়ুম মিয়া। বুধবার বিকেলে বুরকি বাজারে কাইয়ুম মিয়ার নেতৃতত্বে হামলায় মুন্সিরগাঁওয়ের বাসিন্দা ও বিশ্বনাথ উপজেলা আ’লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক জহরুল ইসলাম জহির, কাতার প্রবাসী আব্দুল কাদির ও ইশবপুরের দিলোয়ার হোসেন এবং মধ্যস্থতাকারী আব্দুন নুর মেম্বার আহত হন। গুরুতর আহত অবস্থায় দিলোয়ারকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রাত সোয়া ৭টার দিকে কাইয়ুম মিয়া পক্ষের বুরকি গ্রামের বাবুল মিয়া হামলার শিকার হয়েছেন বলে জানাগেছে।

আজ বুধবার (২১শে ফেব্রুয়ারি) দুপুর আড়াইটার দিকে উপজেলার লামাকাজি ইউনিয়নের বুরকি বাজারে এ হামলা ও পাল্টা হামলার ঘটনা ঘটেছে।

এলাকাবাসীরা জানান, স্কুল পরিচালনা কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ায় গত ১৪ই ফেব্রুয়ারি হাইস্কুলে বৈঠক ডাকা হয়। বৈঠকে সর্বস্মতিক্রমে মুন্সিরগাঁওয়ের নজমুল হোসেন কিরণ মিয়াকে সভাপতি হিসেবে মনোনীত করা হয়। স্কুল পরিচালনা কমিটির বর্তমান সভাপতি বুরকি গ্রামের কাইয়ুম মিয়াও এতে সম্মতি জানান এবং পরবর্তি আরেকটি তারিখ নির্ধারণ করে কমিটি ঘেষাণার প্রস্তাব করেন। ওই বৈঠকের সিদ্দন্তনুযায়ী গত ১৮ই ফেব্রুয়ারির পুনরায় বৈঠক বসলে কাইয়ুম মিয়া আর উপস্থিত হননি। ফলে স্কুলর দাতা সদস্য তৈমুছ আলীর সভাপতিত্বে ওই বৈঠকে এলাকাবাসীর সমন্বয়ে নজমুল হোসেন কিরণ মিয়াকে সভাপতি করে ১৩ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করা হয়।

কিন্ত, কাইয়ুম মিয়া পরদিন গত ১৯শে ফেব্রুয়ারি বুরকি বাজারে বসে পাল্টা আরেকটি কমিটি করে প্রধান শিক্ষক সাধণ চন্দ্র তালুকদারের কাছে জমা দেন। স্কুলের প্রধান শিক্ষক এলাকাবাসীর উপস্থিতিতে দেয়া কমিটিকে গুরুত্ব না দিয়ে নির্বাচনের তফশীল ঘোষণা করে দেন। প্রধান শিক্ষক ও পরিচালনা কমিটির সভাপতির এহেনও কর্মকান্ডে ২১ ফেব্রুয়ারি এলাকাবাসী স্থানীয় আনন্দ বাজারে ‘স্কুল রক্ষা কমিটির ব্যানারে সভার আহবান করা হয়। এলাকার প্রবীণ মুরব্বী আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে বাজারে বৈঠক শেষে মোটরসাইকেল যোগে লামাকাজি যাবার পথে বুরকি বাজারে গেলে কাইয়ুম মিয়ার নেতৃত্বে তাদের উপর হামলা করা করা হলে ৪জন এবং রাতে প্রতিপেক্ষর হামলায় বাবুল মিয়া আহত হন।

Sharing is caring!

Loading...
Open