কালোবাজারে বাংলাদেশ-শ্রীলংকা ম্যাচের টিকেট!


সুরমা টাইমস ডেস্ক ঃঃসিলেটে প্রথমবারের মত খেলতে নামছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। আর এই ম্যাচকে কেন্দ্র করে সিলেটের ক্রিকেট প্রেমীদের মধ্যে অনেক উৎসাহ। যার প্রমাণ মেলে অনলাইনে টিকিট ছাড়ার ১ ঘন্টার মধ্যেই ১৭ হাজার টিকিট বিক্রি হওয়া থেকে।শুক্রবার রাতে অনলাইনে টিকেট ছাড়ার এক ঘন্টার ভিতরেই ॥ংড়ষফ ড়ঁঃ ॥’ সকল টিকেট। টিকেট যেনো সোনার হরিণ সিলেটের দর্শকদের জন্য।

তবে, অনলাইনে টিকেট দিয়েও ঠেকানো যায়নি টিকেট কালোবাজারীদের। অনলাইন থেকে টিকেট সংগ্রহ করে তারা সেই টিকেটগুলো বিক্রি করছে চড়া দামে। ফেইসবুক, হোয়াটসঅ্যাপসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্নজন টিকেটের চড়া দাম চেয়ে পোস্ট করছেন। ক্রিকেটপাগল অনেকেই সেখান থেকে টিকেট কিনেছেন। ১০০টাকার টিকেট ৬০০/৭০০ টাকা, ৩০০ টাকার টিকেট ১২০০-১৫০০টাকা দাম চাওয়া হচ্ছে। একইভাবে অন্য টিকেটের বেলায়ও ৮ থেকে ১০ গুণ দাম চাওয়া হচ্ছে।

কালোবাজারী রুখতে এবারে ধারণক্ষমতার ১৮হাজার টিকেটের ১৭হাজার টিকেট অনলাইনে দিয়েছিলেন সংশ্লিষ্টরা। মাত্র ১ ঘন্টায় শেষ সব টিকেট। টিকেট না পাওয়া হতাশ ক্রিকেট প্রেমীদের জন্য শনিবার ক্রিকেট ১২টায় স্টেডিয়ামের কাউন্টারে টিকেট বিক্রি করা হয়।

এতো কিছুর পরেও কালোবাজারী রুখতে না পারায় হতাশ সিলেটের প্রকৃত ক্রিকেটপ্রেমী দর্শক।মাত্র এক ঘন্টার মধ্যেই টিকিট সংগ্রহ করতে না পেরে হাজার হাজার ক্রিকেট প্রেমীরা নিজেদের ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। তারা শাস্তি দাবী করেন কালোবাজারীদের।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট দলের মধ্যকার টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ সিলেটের মাঠে অনুষ্ঠিত হবে। এর মাধ্যমেই পূর্ণতা পেতে যাচ্ছে ২০১৪ সালে উদ্বোধন হওয়া স্টেডিয়ামটি। খেলার টিকিটমূল্য ধরা হয়েছে গ্র্যান্ড স্ট্যান্ড ১ হাজার, ক্লাব হাউস ৩০০, গ্রিন গ্যালারি ১৫০, ইস্টার্ন গ্যালারি ১০০, ওয়েস্টার্ন গ্যালারি ১৫০ টাকা। খেলা উপলক্ষে সিলেট নগরসহ স্টেডিয়াম এলাকায় কঠোর নিরাপত্তাব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আন্তর্জাতিক মানের খেলাটি উপভোগ করতে আসা দর্শকদের মুঠোফোন ছাড়া অন্য কোনো জিনিসপত্র (ক্যামেরা, পানির বোতাল, পাওয়ার ব্যাংক ইত্যাদি) বহন করে গ্যালারিতে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open