ছাতক-দোয়ারায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চান টি এইচ এম জাহাঙ্গীর

  ছাতক-দোয়ারাবাজার এলাকার মানুষের জন্য কাজ করতে চান বঙ্গবন্ধু গবেষণা সংসদের সাধারণ সম্পাদক টি এইচ এম জাহাঙ্গীর। এ জন্য আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সুনামগঞ্জ-৫ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশা করেন তিনি। শনিবার সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিপ্রায় ব্যক্ত করেন।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘আমি ছাতক ও দোয়ারাবাজারকে আলোকিত এলাকা হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। আর এজন্য আমি আগামি নির্বাচনে এ আসনে নৌকা প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করতে চাই। আশাকরি বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা আমাকে এ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দেবেন।’
সংবাদ সম্মেলনে সিলেট রত্ন ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও বাংলা টাইমস’র প্রধান সম্পাদক টি.এইচ.এম জাহাঙ্গীর বলেন, ১৯৮৭ সাল থেকে ছাত্রলীগের মাধ্যমে রাজনীতিতে আমার পথচলা শুরু। এরপর থেকে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগের একজন তৃণমূল কর্মী হিসেবে সাংগঠনিক কাজে অংশগ্রহণ করি। এসময় আমি বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ দেওয়া ফরিদ গাজী ও ডা. হারিছ আলীসহ অনেকের সান্নিধ্য পেয়েছি। এছাড়া শাহ্জালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে সাবেক উপাচার্য প্রফেসর হাবিবুর রহমানের স্নেহ দিকনির্দেশনা পেয়ে সিলেটের প্রগতিশীল চিন্তা চেতনায় বিশ্বাসী একঝাক কর্মী নিয়ে সিলেটে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নে গঠন করি ‘জয়বাংলা সাহিত্য পরিষদ।

তিনি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ও চেতনা বুকে ধারণ করে দেশরত্ন শেখ হাসিনার একজন কর্মী হিসেবে কাজ করে যাচ্ছি। বঙ্গবন্ধুকন্যার নেতৃত্বে বাংলাদেশ দূর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু সঠিক নেতৃত্বের অভাবে ছাতক ও দোয়ারাবাজার উপজেলার উন্নয়ন অনেকটা বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। এ দু’উপজেলাও দেশের অন্যান্য এলাকার মতো উন্নয়নের পরশ পাক এ বিষয়টিই আমি চাই। তাই আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে প্রার্থী হতে চাই আগামী নির্বাচনে। বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা যদি আমাকে মনোনয়ন দেন তবে নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে নিজের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে ও দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণ করে ছাতক-দোয়ারাবাজারকে আলোকিত এলাকায় রূপ দেব।

তিনি আরো বলেন, ইতিমধ্যে ঢাকায় ছাতক জেলা বাস্তবায়ন আন্দোলন নামে আমার নেতৃত্বে একটি সংগঠনের আত্মপ্রকাশও ঘটেছে। আমাকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রদান করলে এবং সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলে ছাতক ও দোয়ারাবাজারকে শান্তির জনপদে পরিণত করবো। ছাতকের রেল যোগাযোগ আধুনিকায়ন, সিলেট-ছাতক, সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়ককে চারলেনে উন্নিত করা হবে। ছাতক ও দোয়ারাবাজারের সুরমা নদীর তীরে অর্থনৈতিক অঞ্চল, ইকো পার্ক, বিসিক শিল্প নগরী, ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প, গার্মেন্টস, ইন্ডাস্ট্রিসহ বিভিন্ন শিল্প-কারখানা গড়ে তুলা হবে। গ্যাস সংযোগ দেওয়া হবে ছাতক-দোয়ারার প্রতিটি ঘরে। গড়ে তুলা হবে স্কুল ও কলেজসহ তথ্য ও প্রযুক্তিনির্ভর কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তাছাড়া সুরমা নদীর গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে আধুনিক সেতু নির্মাণ, চিকিৎসা সেবার মানোন্নয়ন, আধুনিক হাসপাতাল স্থাপন, কৃষি জমি রক্ষা করে পরিকল্পিতভাবে আবাসন ব্যবস্থা, নারী ও শিশু বান্ধব সমাজ গঠন, প্রতিবন্ধী ও বয়স্কদের খাদ্য, চিকিৎসা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এবং মা ও শিশুদের অকাল মৃত্যু ও পুষ্টিহীনতা থেকে রক্ষায় গ্রহণ করা হবে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ। – বিজ্ঞপ্তি

Sharing is caring!

Loading...
Open