আজও মিলল না খালেদার রায়ের কপি

সুরমা টাইমস ডেস্ক::     জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে বন্দি রয়েছেন এক সপ্তাহ হয়ে গেল। গত বৃহস্পতিবার (৮ই ফেব্রুয়ারি) খালেদাকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড প্রদান করেন পুরান ঢাকার বকশিবাজারের কারা অধিদফতরের মাঠে স্থাপিত ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

রায় প্রদানের পর বৃহস্পতিবার (১৫ই ফেব্রুয়ারি) ৭দিন কেলে গেলেও এখনো রায়ের কপি পাননি খালেদার আইনজীবীরা। যে কারনে আদালতে তার জামিন আবেদন সম্ভব হচ্ছে না।

এর আগে বুধবার রায়ের কপি পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছিলেন খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া। কিন্তু সেদিন না পাওয়ায় বৃহস্পতিবার পাওয়া যেতে পারে বলে জানিয়েছিলেন তিনি।

এবিষয়ে বেগম জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া বলেন, রায়ের নকলের কপিটা মূল কপির সঙ্গে মিলিয়ে দেখার কাজ অর্ধেক শেষ হয়েছে। আদালত জানিয়েছেন, রায়ের সার্টিফাইড কপি পাওয়া যাবে আগামী রোববার বা সোমবার। কপি পাওয়ার পরের দিন উচ্চ আদালতে খালেদার জামিন চেয়ে আপিল করা হবে।

উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ৫বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

এ মামলায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ১০ বছর কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার (৮ই ফেব্রুয়ারি) বেলা আড়াইটার দিকে এ রায় ঘোষণা করেন মামলার বিচারক ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ মো. আখতারুজ্জামান।

মামলার অন্যান্য ৫ আসামীকেও ১০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

সাজা প্রাপ্ত অন্য আসামীরা হলেন- সাবেক সাংসদ ও ব্যবসায়ী কাজী সালিমুল হক কামাল, সাবেক মুখ্যসচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ ও জিয়াউর রহমানের বোনের ছেলে মমিনুর রহমান। মামলায় শুরু থেকে পলাতক আছেন তারেক রহমান, কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও মমিনুর রহমান।

রায়ে সাজাপ্রাপ্ত প্রত্যেকের ২কোটি ১০লক্ষ ৭১ হাজার টাকা সমপরিমান জরিমানাও ধার্য করা হয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open