খালেদা জিয়ার ৬ দফা প্রস্তাব নাকচ

সুরমা টাইমস ডেস্ক::     দশম জাতীয় সংসদের নতুন সদস্যদের ঢাকায় প্লট বরাদ্দের দাবি প্রসঙ্গে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, ‘আপনারা (নতুন সংসদ সদস্যরা) প্লটের কথা বলেছেন। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আমার আলাপ হয়েছে। আমার কাছে যা আছে, আমি সব তাকে দেখিয়েছি।

তিনি (প্রধানমন্ত্রী) বলেছেন, যারা এখনো পায়নি প্রভাইট (বরাদ্দ) করার জন্য। আমরা সেটা করব।’
আজ সোমবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাব নিয়ে সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এ কথা বলেন। এর আগে গত ১৪ জানুয়ারি মন্ত্রী সংসদকে জানিয়েছিলেন নতুন কোনো আবাসন প্রকল্প চালু না হলে ঢাকায় সরকারিভাবে প্লট বা বাড়ি বরাদ্দ পাবেন না প্রথমবারের মতো নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা। সেদিন তিনি বলেন, ‘সরকার যদি সংসদ সদস্যদের নামে প্লট বরাদ্দ দেয়ার নীতিমালা তৈরি করে বা রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক) কিংবা জাতীয় গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষ যদি নতুন করে কোনো আবাসন প্রকল্প হাতে নেয়, সেক্ষেত্রে সংসদ সদস্যদের প্লট বরাদ্দ দেওয়া হবে।’

সাধারণ আলোনায় মন্ত্রী আরো বলেন, ঢাকা শহরে দেড় লাখ সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী থাকেন। তাদের মাত্র ৮ শতাংশকে আমরা আবাসন সুবিধা দিতে পারছি। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন অনন্ত ৪০ শতাংশ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আবাসন সুবিধা দিতে। এ লক্ষ্যে আমরা কাজ হাতে নিয়েছে। যেসব সরকারি আবাসন ৪ তলা আছে সেগুলো ২০ তলা করছি, নতুন অ্যাপার্টমেন্ট করছি। এসব প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে ৬০ শতাংশ সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আবাসন দিতে পারব। এ ছাড়া শুধুমাত্রা সচিবদের জন্য ৩টি টাওয়ার নির্মাণ করা হচ্ছে। যেখানে সুইমিং পুলসহ সকল আধুনিক সুযোগ সুবিধা থাকবে।’

ঢাকা শহরে ৫০ হাজার বস্তিবাসীকে স্বল্পমূলে আবাসন সুবিধা নিশ্চিতের কথা উল্লেখ করে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী বলেন, ঢাকা শহর বস্তিতে ভরা। এটা সমাধান করা সহজ। এরই মধ্যে ৪৫০টি অ্যাপার্টমেন্ট নির্মাণের ভাড়াভিত্তিক কাজ শুরু করেছি। আমাদের টার্গেট ১০ হাজার অ্যাপার্টমেন্ট করা। সেখানে ৫০ হাজার পরিবার উঠতে পারবে, এটা সম্ভব। আমরা নিজস্ব অর্থায়নে সেটা করছি।’

বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার ৮ ফেব্রুয়ারি রায়কে নিয়ে কোনো অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করা হলে তা প্রতিহত করা হবে বলে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, কেউ যদি অন্যায় করে তাকে তো আদালতে যেতেই হবে। আমরা মন্ত্রী থাকতে, বিরোধী দলের সংসদ সদস্য থাকতে আমাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। আদালতে গেছি মুক্তি পেয়েছি। বিএনপি নেত্রী এতিমের টাকা আত্মসাৎ করেছেন মামলা হয়েছে। এখন আদালত যদি তাকে মুক্তি দেয় আমরা ধন্যবাদ জানাব। আর যদি রায়ে সাজা হয় সেই রায়কে নিয়ে কিছু করলে প্রতিহত করা হবে।

খালেদা জিয়ার উদ্দেশে মন্ত্রী আরো বলেন, ‘আপনি আগামি নির্বাচন নিয়ে ৬ শর্ত দিয়েছেন। আপনার একটি দফাও মানতে রাজি না। শুধু একটা মানতে পারি, সেটা হচ্ছে আপনি বলেছেন মানুষ যেন ভোট কেন্দ্রে যেতে পারে। আমরা সেই সুব্যবস্থা করব। আপনাদের কোনো লোককে বাধা দেব না। আপনারা নির্বিঘ্নে পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারবেন। সেই গ্যারান্টি আওয়ামী লীগ তথা সরকার দেবে। তবে সংবিধানের বাইরে গিয়ে কোনো কিছুই করা হবে না বলেও তিনি উল্লেখ করব।

খালেদা জিয়ার ৬ দফা প্রস্তাব নাকচ :-  ওই আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকার ও বিরোধীদলের সদস্যরা খালেদা জিয়ার ৬ দফা প্রস্তাব নাকচ করে দিয়ে বলেন, তাঁর অসাংবিধানিক একটি দাবিও মেনে নেওয়া হবে না। যতই হুমকি-ধুমকি দিক, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারের অধীনেই খালেদা জিয়াকে নির্বাচনে আসতে হবে। প্রথমে ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট মো. ফজলে রাব্বি মিয়া এবং পরে সভাপতিমন্ডলীর সদস্য কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খানের সভাপতিত্বে এই আলোচনা অনুষিত হয়
তরীকত ফেডারেশনের মহাসচিব এম এ আউয়াল বলেন, রায়কে কেন্দ্র করে দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে বিএনপি-জামায়াত জোট।

আমাদের সতর্ক অবস্থানে থেকে তা মোকাবেলা করতে হবে। পুলিশের ওপর হামলাকারীরা সবাই বিএনপির নেতা-কর্মী। দশম জাতীয় সংসদ বর্জন করে বিএনপি এখন পস্তাচ্ছে। আগামীতেও তাদের পস্তাতে হবে। মুখে যত কথা বলুক খালেদা জিয়াকে শেখ হাসিনার অধীনেই নির্বাচনে আসতে হবে। অবিলম্বে সন্ত্রাসী রাজনৈতিক দল জামায়াতকে নিষিদ্ধের দাবি জানান তিনি।

বিরোধী দল জাতীয় পার্টির মোহাম্মদ ইলিয়াছ বলেন, সুশাসনের অভাব থাকার কারণেই ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে চরম দুর্নীতি চলছে। শেয়ার কেলেঙ্কারীতে লাখ লাখ বিনিয়োগকারী পথে বসলেও জড়িত হোতাদের কারো বিচার করা হয়নি। পুঁজিবাজার কেলেঙ্কারীর ঘটনায় অর্থনীতিবিদ ইব্রাহিম খালেদের তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশের দাবি জানান তিনি।

সরকারি দলের অধ্যাপক ডা. হাবিবে মিল্লাত বিএনপি-জামায়াত জোটের কঠোর সমালোচনা করে বলেন, দেশ আজ মঙ্গলবার সব দিক থেকে এগিয়ে যাচ্ছে। এই অগ্রযাত্রাকে বাধাগ্রস্ত করে আবারও পিছিয়ে দিতে খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে স্বাধীনতাবিরোধী সাম্প্রদায়িক জোট নানা চক্রান্ত করছে। ঝামেলা বাঁধিয়ে পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতায় যাওয়া যায় কিনা, সেই চেষ্টা করছে। ষড়যন্ত্রকারীদের ধরে ধরে বিচার করা হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open