পুলিশের ওপর হামলাকারীদের আইনের মুখোমুখি করা হবে

সুরমা টাইমস ডেস্ক::          বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার গাড়ির বহরের সামনে থেকে গত ৩০শে জানুয়ারি বিকেলে অতর্কিতে পুলিশের ওপর আক্রমণ চালানো হয়েছে। হামলা চালিয়ে পুলিশের দুটি রাইফেল ভেঙ্গে ফেলাসহ প্রিজন ভ্যান ভাঙচুর করা হয়েছে। পুলিশ অত্যন্ত ধৈয্যের সঙ্গে পরিস্থিতি মোকাবেলা করেছে। ভিডিও ফুটেজের মাধ্যমে হামলাকারীদের সনাক্ত করা হচ্ছে, হামলাকারী সবাইকে আইনের মুখোমুখি করা হবে। আজ রবিবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল এ তথ্য জানান।

ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট মো. ফজলে রাব্বি মিয়ার সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশনে এ সংক্রান্ত সম্পুরক প্রশ্নটি উত্থাপন করেন সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য বেগম ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা।

হেফাজতের আল্লামা শফি আহমদের সঙ্গে সাক্ষাত প্রসঙ্গে জাসদের নাজমুল হক প্রধানের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, সারা বাংলাদেশের আলেম সমাজের অত্যন্ত সম্মানীয় ব্যক্তি হচ্ছেন আল্লামা শফি আহমেদ। সবাই তাঁকে শ্রদ্ধার সঙ্গে দেখেন। চট্টগ্রামে সরকারি কাজে গিয়েছিলাম। সেখানে গিয়ে অসুস্থ্যতার খবর জানতে পেরেই তাঁর সঙ্গে দেখা করতে যাই। এখানে অন্য কিছু নেই।

জাতীয় পার্টির সদস্য মামুনুর রশিদ কিরনের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, বাংলাদেশ-মায়ানমার সীমান্ত দিয়ে অবৈধ অনুপ্রবেশ রোধ, মাদকদ্রব্যসহ অন্যান্য চোরাচালান প্রতিরোধ, বিভিন্ন প্রকার সীমান্ত অপরাধ দমন এবং দেশের অভ্যন্তরীণ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার প্রাথমিক পর্যায়ে মিয়ানমারের সীমান্ত এলাকায় শাহপরীর দ্বীপ হতে ২৭১ কিলোমিটার রিং রোডসহ কাঁটা তারের বেড়া নির্মাণের পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে। যা পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করা হবে।

সরকারী দলের মমতাজ বেগমের প্রশ্নের জবাবে আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল জানান, মিয়ানমার হতে যে সকল রোহিঙ্গা বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করেছে তারা যাতে টেকনাফের শরণার্থী ক্যাম্প থেকে পালিয়ে যেতে না পারে সেজন্য সরকার থেকে নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে একটি সুনির্দিষ্ট ও সুপরিসর নিরাপত্তা বেষ্টনীর মধ্যে রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে। রোহিঙ্গারা যাতে অন্যত্রে ছড়িয়ে পড়তে না পারে সেজন্য ১১টি চেকপোষ্ট স্থাপন করা হয়েছে। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী কর্তৃক রোহিঙ্গাদের দৈনন্দিন চলাচল মনিটরিং করা হচ্ছে।

জাতীয় পার্টির এ কে এম মাঈদুল ইসলামের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, বিভিন্ন পেশায় বাংলাদেশে ৮৫ হাজার ৪৮৬ জন বিদেশি নাগরিক বাংলাদেশে কর্মরত রয়েছেন। পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের তথ্যানুযায়ী সবচাইতে বেশি বিদেশি নাগরিকের তালিকায় রয়েছে ভারতের। দেশটির ৩৫ হাজার ৩৮৬ জন নাগরিক বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত রয়েছেন।

তরীকত ফেডারেশনের সদস্য এম এ আউয়ালের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, বর্তমান সরকারের দুই মেয়াদে (২০০৯ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত) বিভিন্ন দপ্তর কর্তৃক অবৈধভাবে আনিত সর্বমোট ৪ হাজার ১৩০ কেজি স্বর্ণ আটক করা হয়। উক্ত স্বর্ণ বাংলাদেশ ব্যাংকে অস্থায়ীভাবে জমা করা হয়। পরবর্তীতে এ বিষয়ে দায়েরকৃত মামলা নিষ্পত্তি সাপেক্ষে ওই স্বর্ণ রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করে স্থায়ীভাবে বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা করা হয়।

Sharing is caring!

Loading...
Open