কানাইঘাটে জলাবদ্ধতা দূরীকরণে ইউএনও’র হস্তক্ষেপ কামনা

নিজস্ব প্রতিনিধি::        সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার সদর ইউপির ভাটিদিহি বাটইশাল গ্রামের জলাবদ্ধতা দূরীকরণে এলাকাবাসী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। জানা যায়, সদর ইউপি ও বাণীগ্রাম ইউপির সীমানার মধ্যে বিশাল একটি খাল ছিল। এটি বোরহান উদ্দিন সড়ক থেকে শুরু হয়ে বড়দেশ খালের সাথে মিলিত হয়েছে। কিন্তু যুগের পালা বদলে বাণীগ্রাম ইউপির সীমানা খাল ভরাট করে সড়ক নির্মাণ করায় ভাটিদিহি ভাটইশাল গ্রামের সমস্ত পানি তাদের সীমানার খাল দিয়ে প্রবাহিত হয়ে আসছে। কিন্তু এরই মাঝে কতিপয় লোকজন সরকারী খালে বাধ দিয়ে পুকুর ও ঘরবাড়ি নিমার্ণ করায় বর্ষাকালে গোটা এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্ঠি হয়ে ফসল সহ জনসাধারণের মারাত্মক ক্ষতি সাধন করে বলে জানা গেছে। এরই প্রেক্ষিতে জলাবদ্ধতা দূরীকরণে সরকারী খাল বাহিরের জন্য এবং ব্যক্তি মালিকানাধীন জায়গার উপর থেকে রাস্তা সরিয়ে সরকারী খাল দিয়ে রাস্তা সংস্কারের জন্য গত বুধবার এলাকাবাসীর পক্ষে ভাটিদিহি বাটইশাল গ্রামের মৃত মবারক আলীর পুত্র ওলিউর রহমান সরকারী খাল ভরাটকারী কতিপয় লোকজনের নাম উল্লেখ করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানা বরাবরে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, একই গ্রামের মৃত সিদ্দিকুর রহমানের পুত্র আমেরিকা প্রবাসী আজাদ মিয়া সরকারী খাল ভরাট করে পুকুর নিমার্ণ করায় এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্ঠি হয়েছে। বর্তমানে তিনি পুকুরের পাশে একই খালের উপর নতুন করে ঘর নির্মাণ করার পায়তারা করছেন। এ ব্যাপারে আজাদ মিয়া জানান তিনি দীর্ঘদিন দেশের বাহিরে ছিলেন তাই পুকুর বা ঘরবাড়ি নিমার্ণে তিনি জড়িত নন। এমনকি সরকারী খাল হলে সরকার চাইলে তিনি ছাড়তে বাধ্য রয়েছেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open