ফের সাহসী চরিত্র বেছেনিলেন দীপিকা……..

সুরমা টাইমস ডেস্ক::     বলিউডের অভিনেত্রীদের মধ্যে প্রথম স্থানটির দাবি এখন তিনি অনায়াসেই জানাতে পারেন। বহু বাধা-বিপত্তি পেরিয়ে বক্স অফিসে সাফল্যের মুখ দেখেছে ‘পদ্মাবত’। আটদিনেই ১৬০ কোটি রুপির মাইলস্টোন ছুঁয়ে ফেলেছে ছবিটি। আর প্রশংসিত হয়েছে তাঁর অভিনয়। যে অভিনয়ের জন্য তিনি ছবির দুই পুরুষ সহ-অভিনেতা শহীদ-রণবীরের থেকেও অনেক বেশি পারিশ্রমিক পেয়েছেন। তবে সাফল্য উপভোগ করার তেমন সময় নেই দীপিকা পাড়ুকোনের। কারণ ‘পদ্মাবতী’র খোলস ছেড়ে এবার ‘স্বপ্না দিদি’ হতে চলেছেন তিনি।

ঐতিহাসিক চরিত্র থেকে সোজা আন্ডারওয়ার্ল্ডের বাসিন্দা। আশরাফ খান, মুম্বাইয়ের অন্ধকার জগতে যাঁর পরিচিতি স্বপ্না দিদি নামে। দাউদ ইব্রাহিমের এক ঘনিষ্ঠ অনুচরের স্ত্রী ছিলেন স্বপ্না। সেই সূত্রে প্রথমে দাউদের সঙ্গে বেশ ভাল সম্পর্ক ছিল তাঁর। কিন্তু ভুয়ো এনকাউন্টারে স্বপ্নার স্বামীকে খুন করায় দাউদ। এরপরই কুখ্যাত ডনকে মারার শপথ নেন স্বপ্না। পুলিশের ইনফরমার হিসেবেও কাজ করেন তিনি। শেষে হাত মেলান হুসেদ উস্তারার সঙ্গে। বহুদিন ধরে দাউদকে মারার চেষ্টা করছিলেন হুসেদও। শারজা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচ দেখার সময়ই ডনকে মেরে ফেলার পরিকল্পনা করা হয়। কিন্তু সে পরিকল্পনা সফল হয়নি। নির্মমভাবে খুন করা হয় স্বপ্নাকে। এখনও সেই নৃশংসতার উদাহরণ আজও আন্ডারওয়ার্ল্ডে দেওয়া হয়।

এমন একটা চরিত্র কেন বাছলেন নায়িকা? প্রশ্নের উত্তরে দীপিকা জানান, প্রায় দুই বছর ধরে একাধিক চিত্রনাট্য শুনেছেন তিনি। কিন্তু পরিচালক বিশাল ভরদ্বাজ যেভাবে এই চরিত্রকে সাজিয়েছেন তা মনে ধরেছে তাঁর। তবে দীপিকার জন্য অপেক্ষা করতে করতে বিরক্ত বিশাল নাকি অন্য দিকে মন দিতে চেয়েছিলেন। নায়িকা তা করতে দেননি। বিশালের কাছে আবদার করে ছবি তৈরির সম্মতি তিনি নিয়েই নিয়েছেন। আর ‘পিকু’র পর ফের আরেকবার জুটি বাঁধতে চলেছেন ইরফান খানের সঙ্গে।

Sharing is caring!

Loading...
Open