‘বিত্তবানরা অসহায়দের পাশে দাঁড়ালে দারিদ্রতা থাকবে না’

সুরমা টাইমস ডেস্ক ::           সিলেটের সিভিল সার্জেন হিমাংশু লাল রায় বলেছেন, সমাজের দুঃস্থ ও গরীব পরিবারের জন্য যেমনি বাঘা ইউনিয়ন ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন ইউকে যেভাবে সমাজের দুঃস্থ ও গরীব পরিবারের জন্য কাজ করে যাচ্ছে, তা অবশ্যই প্রশংসার দাবী রাখে। তিনি বাঘা ইউনিয়ন ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের কাছে দাবী জানান, এভাবে সমাজের মানুষের সুখ-দুঃখ যেন আজীবন ভাগ করে নেয়। সমাজের বিত্তবানরা যদি গরীব ও অসহায়দের পাশে দাঁড়ালে সমাজে গরীব আর থাকবে না। স্বাস্থ্য মানুষের মৌলিক চাহিদার অন্যতম একটি। সরকারের পাশাপাশি বে-সরকারী ভাবে স্বাস্থ্য সেবা দিলে মানুষ সু-স্বাস্থ্য ফিরে পাবে।
তিনি বৃহস্পতিবার সকালে গোলাপগঞ্জ উপজেলার বাঘা ইউনিয়নের স্থানীয় একটি কমিউনিটি সেন্টারে বাঘা ইউনিয়ন ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন ইউকে’র ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ও চক্ষু শিবিরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
সংগঠনের স্থানীয় শাখার সভাপতি বাঘা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেনের সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারী জালাল উদ্দিনের যৌথ পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন সংগঠনের ইউকে শাখার সভাপতি লায়েকুল ইসলাম, সহ-সভাপতি মুজিবুর রহমান মুজিব, এনাম উদ্দিন, উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, স্থানীয় শাখার সহ-সভাপতি পাখি মিয়া, আব্দুস সোবহান মেম্বার, আব্দুর রাজ্জাক, আতাউর রহমান, আজমল আলী, কয়েছ আহমদ, এসএম ছালেহ আহমদ সোহেল, জিয়াউর রহমান, এম জহুরুল ইসলামত মখর, মঈন উদ্দিন প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রেনাম, শিকলু, আবু সুফিয়ান, মুক্তা, জাকির বদরুল, ইয়াহইয়া, সুলতান মাহমুদ, আজাদ, আল আমিন, আবুল হাসনাত তালিম, হামিদ, মানিক, জুবায়ের, জাহাঙ্গির, ইকবাল, আজমল, সাইদুল, আব্দুল কাদির, আব্দুল আহাদ প্রমুখ।
মেডিকেল ক্যাম্প ও চক্ষু শিবিরে বিশেষজ্ঞ চিকিৎক ছিলেন, জাতীয় হৃদরোগ ইনষ্টিটিউট ও হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ডা: মো: বদরুল আলম, ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ডা: মুহাম্মদ আলম শিকদার, প্রভাষক ডা: তাসনীম ফারূকী, মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা: মো: জালাল হোসাইন, ডা: সুজয় চৌধুরী, ডা: আখলাক আহমেদ, জগদীশ চন্দ্র রায়, ডা: মো: সালেহ আহমেদ প্রমুখ।
বাঘা ইউনিয়ন ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন ইউকে’র উদ্যোগে ইউনিয়নের গরীব, অসহায় ও দুঃস্থ নারী, পুরুষ ও শিশুদের মেডিসিন, হৃদ রোগ, গাইনী, নাক, কান, গলা ও দাঁতসহ বিভিন্ন জটিল প্রায় ১৫শ’ রোগীদের বিনামূল্যে চিকিৎসাপত্র প্রদান ও চক্ষু রোগেদের ফ্রি অপারেশন করা হয়।

Sharing is caring!

Loading...
Open