নগরীতে সাংবাদিকদের ফাঁসাতে গিয়ে নিজেই ফেঁসে গেলেন এটিএসআই কুতুব

সুরমা টাইমস ডেস্ক::                  সোবহানীঘাট এলাকায় চ্যানেল (এস ইউ কে)এর স্টাফ রিপোর্টার মোয়াজ্জেম হোসেন সাজু ও ক্যামেরাপার্সন রুহিন আহমদের সাথে দুর্ব্যবহার এবং নাশকতার মামলায় ফাঁসিয়ে দিতে গিয়ে নিজে ফেঁসে গেলেন ট্রাফিক পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এটিএসআই) কুতুব উদ্দিন। তাকে ক্লোজড করা হয়েছে।
গতকাল রবিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে নগরীর সোবহানীঘাট পয়েন্টে চ্যানেল (এস ইউ কে)এর স্টাফ রিপোর্টার মোয়াজ্জেম হোসেন সাজু ও ক্যামেরাপার্সন রুহিন আহমদ ট্রাফিক আইল্যান্ডে দাঁড়িয়ে সংবাদের জন্য ভিডিওচিত্র ধারণ করছিলেন। এসময় এটিএসআই কুতুব উদ্দিন এসে তাদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে ট্রাফিক আইল্যান্ড থেকে নেমে যেতে বলেন। কথা কাটাকাটির এক ফাঁকে কুতুব উদ্দিন উত্তেজিত হয়ে উঠেন এবং সাংবাদিকদের মারধর করে পুলিশ ফাড়িতে নিয়ে আটকে রাখেন। এসময় এটিএসআই কুতুব প্রধানমন্ত্রীর গাড়িবহরে নাশকতার চেষ্টার মামলায় সাজু ও রুহিনকে ফাঁসিয়ে দেয়ার হুমকি দেন।
এ ঘটনার খবর পেয়ে সোবহানীঘাট ফাঁড়িতে ছুটে যান সাজুর সহকর্মী ও সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ। পুলিশের উপ-কমিশনার ফয়সল মাহমুদ, উপ-কমিশনার (ট্রাফিক) তোফায়েল আহমদ ও অতিরিক্ত উপ-কমিশনার আব্দুল ওয়াহাব প্রথমে সাংবাদিক সাজু ও রুহিনের বক্তব্য শুনেন। পরে অভিযুক্ত এটিএসআই কুতুব উদ্দিনের বক্তব্য শুনেন এবং চ্যানেল এস-এর ক্যামেরায় ধারণকৃত ভিডিও দেখে কুতুব উদ্দিনকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়।
উপস্থিত পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা দুঃখ প্রকাশ করে বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে দোষী পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি গ্রহণের আশ্বাস দেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open