কমলগঞ্জে ভূমি দখল করে অবৈধ বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান ও যানবাহন স্ট্যান্ড

নিজস্ব প্রতিনিধি::
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার ব্যস্ততম বাণিজ্যিক কেন্দ্র শমশেরনগর বাজার সংলগ্ন সড়ক ও জনপথ বিভাগের ভূমি দখল করে গড়ে উঠছে বিভিন্ন বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান ও যানবাহন স্ট্যান্ড। ব্যস্ততম এই সড়কে একের পর এক পাকা আধাপাঁকা নানা স্থাপনা গড়ে উঠলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ রয়েছেন নির্বিকার। ফলে যানবাহন ক্রসিং, পথচারী ও স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীদের যাতায়াতে যেকোন মুহুূর্তে দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েছে।

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, সড়ক ও জনপথ বিভাগের শ্রীমঙ্গল, ভানুগাছ, শমশেরনগর, কুলাউড়া সড়কের শমশেরনগর বাজারের ভানুগাছ রোডে দু’পাশে পাকা, আধা পাকা বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠছে। সড়কের গাঁ ঘেষে গড়ে উঠা প্রতিষ্ঠান সমুহের পাশাপাশি সম্প্রতি সময়ে সিএনজি-অটোরিক্সা ও ট্রাক-পিকআপ স্ট্যান্ড ও পাকা অফিস স্থাপন করা হয়েছে। রাস্তার দু’পাশে সারিবদ্ধভাবে রাখা হয়েছে সিএনজি-অটোরিক্সা, ট্রাক, পিকআপ ভ্যান। ব্যস্ততম এই সড়কে সুজা মেমোরিয়াল কলেজ, বিএএফ শাহীন কলেজ, হাজী মো. উস্তওয়ার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, এএটিএম বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়, আইডিয়াল কিন্ডার গার্টেন স্কুল, শমশেরনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, আব্দুল মছব্বির একাডেমি ও মাদ্রাসার শত শত শিক্ষার্থী নিয়মিত যাতায়াত করেন। তাছাড়া স্থানীয় সকল প্রকার যানবাহন চলাচল করার কারনে ঐ স্থান পারাপারকালে দু’টি গাড়ি ক্রসিং করা রীতিমতো সম্ভব হয় না। স্কুল-কলেজ ছুটি হলে শিক্ষার্থীদের এখানে এসে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়। সম্পূর্ণ অবৈধ ও অপরিকল্পিতভাবে সড়কের গাঁ ঘেষে গড়ে উঠা বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান এবং যানবাহন সমুহের অফিস স্ট্যান্ড স্থাপন করা হয়েছে। সড়কের পাশে এখানে আরও প্রতিষ্ঠান স্থাপনের প্রস্তুতি চলছে। স্থানীয় সচেতন মহল, স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীরা এসব বিষয়ে বিভিন্ন সময়ে উর্দ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নির্বিকার রয়েছেন।

শমশেরনগর এর হাজী মোঃ উস্তওয়ার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী চামেলী আক্তার, শাপলা আক্তার, সামিহা সুলতানা, সুজা মেমোরিয়া কলেজের শিক্ষার্থী নিলীমা সুলতানা, মাহফুজুর রহমান বলেন, শমশেরনগর চৌমুহনা থেকে ভানুগাছ সড়কের শ্রমকল্যাণ কেন্দ্র পর্যন্ত রাস্তার দু’পাশ যানবাহন ও দোকানপাটের কারনে নিয়মিত যাতায়াত করতে দুর্ভোগ দেখা দেয়। দোকানপাট গড়ে উঠায় সড়কের পাশে স্থান না থাকার কারনে অনেক সময় দু’পাশ থেকে গাড়ি আসলে মরনের ঝুঁকি নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। হাজী মো: উস্তওয়ার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বিপ্লব ভূষন দাস ও সুজা মেমোরিয়াল কলেজের শিক্ষক জমশেদ আলী, ব্যবসায়ী রফিক মিয়া বলেন, শিক্ষার্থী পথচারীদের যাতায়াতের এই স্থানটি খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। এখানে গাড়ি আসলে দু’পাশে দাঁড়ানোর মতো জায়গাও নেই। তারা আরও বলেন, বিভিন্ন সময়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে এসব বিষয়ে অবহিত করা হয়েছে। তাছাড়া হাজী মো: উস্তওয়ার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা সিএনজি অটোরিক্সার চালকরা স্কুল ছুটির পর ছাত্রীদের সাথে প্রায়ই ইভটিজিং করে।

কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক বলেন, এই বিষয়টি নিয়ে মৌলভীবাজার সড়ক ও জনপথ বিভাগের কাছে চিঠি দিয়েছি। সার্ভেয়ারদের দিয়ে সার্ভে করানোর পর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ব্যাপারে সড়ক ও জনপথ বিভাগ মৌলভীবাজার এর নির্বাহী প্রকৌশলী মিন্টু রঞ্জন দেবনাথ এর সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, সড়কের এই বিষয়ে সার্ভে করানোর জন্য কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। সার্ভে ও লিস্ট করার পর সেখানে অভিযান চালানো হবে।

Sharing is caring!

Loading...
Open