আগামী ৮ই ফেব্রুয়ারি ফয়সালার দিন–বিএনপি

সুরমা টাইমস ডেস্ক::         বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার রায় ঘোষণার দিনকে (আগামী ৮ই ফেব্রুয়ারি) ফয়সালার দিন উল্লেখ করে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, ওই দিন বিএনপির চেয়ারপারসনের গায়ে যদি ফুলের আঁচড়ও পড়ে বাংলাদেশের মানুষ গর্জে উঠবে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী এবং এরশাদ বেগম জিয়াকে জেলে পাঠাতে চান দেশবাসী সেটা জানে। তাদের এই আক্রোশ দেশবাসী মানবে না। রাস্তায় কে নামলো কে নামলো না এটা নিয়ে কিছু বলার নেই। বাংলাদেশের মানুষ কখনও বসে থাকবে না।

আজ শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরাম আয়োজিত আরাফাত রহমান কোকোর ৩য় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা ও স্মরণ সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

দুদু বলেন, আমরা যদি আন্দোলন একবার শুরু করি আপনাকে (শেখ হাসিনা) পরাজিত করার আগে রাস্তা থেকে ঘরে ফেরার কোনো সুযোগ নেই। আমাদের নেত্রী অতীতে এরশাদের পতন না ঘটিয়ে নির্বাচনে যাননি। যদি বিবেচনায় আসেন ভালো আর যদি না আসেন আগামী ৮ তারিখ থেকেই বাংলাদেশের মানুষ বিএনপির নেতৃত্বে রাজনৈতিকভাবে অন্যায় অত্যাচার প্রতিরোধে গর্জে উঠবে।

প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে সাবেক এ ছাত্রনেতা বলেন, প্রধানমন্ত্রী আপনাকে বলি একদিন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবেরও পাকিস্তানিরা বিচার করেছিল। তাকে সাজা দিয়েছিল এবং কারাগারেও রেখেছিল। তাতে কি পাকিস্তান রক্ষা পেয়েছিল। শেখ মুজিব কি জাতির কাছে ছোট হয়েছিল? না-কি বীর সন্তান হিসেবে শেখ মুজিব জাতির কাছে আবির্ভূত হয়েছিল। আপনি তার কন্যা হিসেবে একটু ভাবেন, চিন্তা করেন তাহলে বুঝতে পারবেন জেলে ভরলেই সমস্যার সমাধান হয় না। সাজা দিলেই গণতান্ত্রিক আন্দোলন ঠেকানো যায় না।

‘তাই আমি প্রধানমন্ত্রীকে বলবো সময় থাকতে সাবধান হোন। আমরা আপনাকে পরাজিত করতে চাই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে। গণতান্ত্রিক বিধি ব্যবস্থা রক্ষা করতে চাই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে।’

বিএনপির এই নেতা বলেন, বিএনপির জন্মই হয়েছে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা এবং রক্ষা করার জন্য। বিএনপি যদি ওই ধরনের নির্বাচনে যায় ওই দিনই তো আমাদের মৃত্যু হবে। জেনে শুনে আমরা তা করবো এটা যদি আপনারা প্রত্যাশা করেন তাহলে বুঝবো বোকার স্বর্গে বাস করছেন।।

আয়োজক সংগঠনের উপদেষ্টা নাসির উদ্দীন হাজারীর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক এম জাহাঙ্গীর আলমের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় প্রমুখ।

Sharing is caring!

Loading...
Open