ছাত্রলীগের সঙ্গে ম্যারাথন বৈঠক, সতর্ক থাকার নির্দেশ আ.লীগের

সুরমা টাইমস ডেস্কঃ ষড়যন্ত্র হতে পারে জানিয়ে ছাত্র বিষয়ক সহযোগী সংগঠন ছাত্রলীগকে সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছে আওয়ামী লীগ। সেই সঙ্গে কোনো রকম উস্কানিতে পা না দিতেও বলেছেন নেতারা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভুত পরিস্থিতি নিয়ে বৃহস্পতিবার ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে অধিভুক্ত সাত কলেজের কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের নিয়ে ‘জরুরি’ বৈঠক করেন আওয়ামী লীগের কয়েকজন কেন্দ্রীয় নেতা।

বিকাল সাড়ে পাঁচটা থেকে রাত সাড়ে ১০টা পর্যন্ত এই বৈঠক হয় বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে।

আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বৈঠকে ছিলেণ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি একেএম এনামুল হক শামীম।

বৈঠকে সাতটি কলেজকে ঢাকার বিশ্ববিদ্যালয়ের অভিভূক্তি ও এর ফলে পক্ষ-বিপক্ষের আন্দোলন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কার্যালয় ঘেরাও ও ফটক ভাঙচুর ও তাকে ‘লাঞ্ছিত করা’ এবং উপাচার্যকে উদ্ধার করতে গিয়ে ছাত্রলীগের সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ার বিষয়ে ছাত্রনেতাদের বক্তব্য শুনছেন কেন্দ্রীয় নেতারা। এর বাইরে আগামী মার্চে ছাত্রলীগের সম্মেলন নিয়ে দীর্ঘ আলোচনা হয়।

বৈঠকে অংশগ্রহণকারীরা জানান, সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি ও বর্তমান আওয়ামী লীগ নেতা এনামুলক হক শামীম গত মঙ্গলবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘটনার বিষয়ে জানতে চান ছাত্রলীগ নেতাদের কাছে।

জবাবে ছাত্রলীগ নেতারা জানান, গণমাধ্যমে একতরফা সংবাদ এসেছে। আন্দোলনের নামে সেখানে বামপন্থীরা কী পরিস্থিতি তৈরি করেছিল সেটা আসেনি। তারা সেখানে উপস্থিত হওয়ার পর তারাই মারামারিটা শুরু করেছিল।

এ সময় নানক বলেন, ‘আমি তো ভেবেছি তোমাদেরই দোষ। তাহলে মিডিয়া ঠিক কাজ করেনি।’

‘তারপরও তোমরা সতর্ক অবস্থানে তাকবে। বামরা উস্কানিমুলক কিছু করবে, তোমাদের সতর্ক থাকতে হবে।’

আগামী জাতীয় নির্বাচন নিয়েও নানক দিক নির্দেশনা দেন ছাত্রলীগকে। বলেন, ‘আগামী নির্বাচনে তোমাদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। এই নির্বাচন আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’

সাত সরকারি কলেজের অধিভুক্তি নিয়ে ছাত্রলীগের কোনো আপত্তি আছে কি না- আওয়ামী লীগ নেতাদের এমন প্রশ্নে ছাত্রলীগ নেতারা জানান, এ বিষয়ে তাদের কোনো আপত্তি নেই।

ছাত্রলীগ জানায়, সাত সরকারি কলেজের বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে অবস্থান স্পষ্ট করা হয়েছে। ওই কলেজের কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রমে কোনো প্রভাব পড়বে না। কাজেই এ নিয়ে ছাত্রলীগের আপত্তির কারণ নেই।

আগামী মার্চের মধ্যে ছাত্রলীগের সম্মেলন করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে নির্দেশ দিয়েছেন, সেটি নিয়েও কথা হয়। নানক বলেন, ‘সম্মেলন যে কোনো মূল্যে ৩১ তারিখের মধ্যে হতে হবে। আগামী সপ্তাহের মধ্যে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির গঠন করতে হবে।’

এ সময় ছাত্রলীগের একটি পক্ষ উদ্ভুত পরিস্থিতিতে সম্মেলন না করার প্রস্তাব দেয়। তবে নানক জানান, এটা হওয়া যাবে না।

‘দলের সভানেত্রী নির্দেশ দিয়েছেন যেন সম্মেলন করা হয়। এটা না হলে তার নির্দেশ ভায়োলেট করা হয়।’

বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে নানক বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে কেন্দ্র করে ষড়যন্ত্র চলছে। এ ব্যাপারে ছাত্রলীগকে সতর্ক থাকতে হবে। সেদিন বহিরাগতরা বিশ্ববিদ্যালয়ে অস্থিরতা সৃষ্টির চেষ্টা করেছিল। ছাত্রলীগ সতর্ক থাকার কারণে তা সম্ভব হয়নি।’

‘ভিসিকে অবরুদ্ধ করে যে আন্দোলন করার চেষ্টা করা হয়েছিল, ছাত্রলীগের থাকার কারণে তা সম্ভব হয়নি। ভবিষ্যতে যে কোনো ধরনের ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় ছাত্রলীগকে সতর্ক থাকতে হবে।’

গত ১৫ জানুয়ারি সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে আন্দোলনে নামে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। ওই কর্মসূচিতে বাধা দেয়ার অভিযোগ উঠে ছাত্রলীগ কর্মীদের বিরুদ্ধে।

আবার সেই কর্মসূচিতে মেয়েদের যৌন হয়রানির অভিযোগ এনে ‘নিপীড়নবিরোধী শিক্ষার্থীদের’ ব্যাপারে আন্দোলনে নামে বামপন্থী ছাত্র সংগঠনের নেতা-কর্মীরা।

১৭ জানুয়ারি প্রক্টর অফিস ঘেরাও করে ফটক ভাঙচুর করে তারা। এতে ৫০ থেকে ৬০ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়।

আর গত মঙ্গলবার ‘যৌন নিপীড়ন’কারী ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের বহিষ্কারের দাবি, মামলা প্রত্যাহার, প্রক্টরের পদত্যাগ এবং সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিল দাবিতে উপাচার্যের কার্যালয় ঘেরাও করে বামপন্থী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা।

সেদিন বিকালে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে দুই পক্ষে প্রথমে হাতাহাতি এবং পরে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা ব্যাপক পিটুনি দেয় বিক্ষোভকারীদের।

এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছে ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠনের। তবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এরই মধ্যে ছাত্রলীগের প্রতি তার সমর্থন জানিয়েছেন। বলেছেন, সেদিন অবরুদ্ধ উপাচার্যকে উদ্ধারে যাওয়া ছাত্রলীগের কর্তব্য ছিল।

Sharing is caring!

Loading...
Open