দিনে শিক্ষক, রাতে নাশকতাকারী!

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

দুনিয়া জুড়ে কত রকমের মানুষ আছে, সেইসাথে আছে তাদের বিচিত্র সখ। তাদের মধ্যে কেউ আছেন মজা পান অন্যের উপকার করে, আবার এমনও কেউ আছেন যিনি মজা পান অন্যের ক্ষতি করে।

তেমনি বিচিত্র সখের মানুষ অমিত গায়েকোয়াড়। ভারতের কর্নাটকের কালাবুরাগি জেলার ওই ব্যক্তি পেশায় শিক্ষক। দিনের বেলায় তিনি ছাত্র পড়ান। আর রাতের বেলা অন্যের গাড়িতে আগুন লাগিয়ে মজা পান।

বেলাগাভি ইনস্টিটিউট অব মেডিকাল সায়েন্স (বিআইএমএস) কলেজের প্যাথোলজি বিভাগে সহ-অধ্যাপক অমিত গায়েকোয়াড়ের এমন আচরণে রীতিমত হতবাক পুলিশ। বিস্মিত পাড়া পড়শিও।

একটি সংবাদ সংস্থার রিপোর্ট অনুযায়ী, গত এক সপ্তাহে ২০টি গাড়ি জ্বালিয়েছেন অমিত। আর সবকটি ঘটনাই ঘটেছে কালাবুরাগি এবং বেলাগাভির আশপাশেই। পুলিশ জানিয়েছে, জানুয়ারি ১৩, ১৪ এবং ১৫ তারিখে কালাবুরাগিতে ন’টির বেশি গাড়িতে আগুন লাগিয়েছিলেন তিনি। ১৭ তারিখ রাতে বেলাগাভির যাদবনগরে একসঙ্গে সাতটি গাড়ি জ্বালিয়ে দেন। গত বুধবার রাতে, ফের একটি গাড়িতে আগুন লাগাতে গিয়েছিলেন অমিত। সেই সময় পুলিশ তাঁকে ধরে ফেলে।

পুলিশ জানিয়েছে, অভিযোগ জমা হচ্ছিল বহুদিন ধরেই। তবে অপরাধকে ধরতে চেষ্টায় ছিল পুলিশ। কিন্তু কী ভাবে গাড়িতে আগুন লাগছে তার সঠিক কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি। গত বুধবার রাতে, টহল দেওয়ার সময় মাথায় হেলমেট পড়ে একজনকে গাড়িতে উঠতে দেখে সন্দেহ হয়। আর সেই সময় গাড়িটিতে আগুন লাগাতে যাচ্ছিলেন অমিত। ঠিক সময় তাকে ধরে ফেলা হয়। তবে পুলিশের জেরার তিনি কিছুই বলেননি।

তদন্তকারী এক অফিসারের কথায়, খুবই চতুরতার সঙ্গে ওই কাজ করতেন তিনি। রাত তিনটে থেকে চারটের মধ্যে বাড়ি থেকে বার হতেন। রাস্তার সিসিটিভি ক্যামেরা থেকে নিজেকে আড়াল করতে মাথা ঢাকা জ্যাকেট পড়তেন। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের দাবি, মানসিক অসুস্থতা থেকেই ওই কাজ করতেন অমিত। সূত্র:- আনন্দ বাজার।

Sharing is caring!

Loading...
Open