আইএস যোদ্ধাদের নিয়োগ দিচ্ছে আল কায়েদা

সুরমা টাইমস ডেস্ক:: মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক সশস্ত্র জঙ্গি গোষ্ঠী আইএসের ‘খেলাফত’ পতনের পর তাদের যোদ্ধাদের নিজেদের সংগঠনে নিয়ে নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রে ৯/১১ হামলায় অভিযুক্ত আরেক জঙ্গি সংগঠন আল কায়েদা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান জানিয়েছে, গত গ্রীষ্মে এই নিয়োগ দেওয়ার প্রচারণা শুরু হয়। এর আগে আইএস তাদের চূড়ান্ত ঘাঁটি হারায়।

আফগান যুদ্ধের পর আল কায়েদার প্রভাব কমে আসার মার্কিনিদের নেতৃত্বে ইরাক যুদ্ধ শুরু হলে উত্থান ঘটে আইএসের। দুই সশস্ত্র জঙ্গি গোষ্ঠীর মধ্যে বিরোধের খবর বেশ পুরনো। ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে আল কায়েদার নেতা আয়মান আল জাওয়াহিরি এক অডিও বার্তায় আইএসকে মিথ্যাবাদী বলে আখ্যা দেন। ওই বছরের এপ্রিলে ইরাকের ভাইস প্রেসিডেন্ট আয়াদ আলাওয়ি ফাঁস হওয়া নথির বরাত দিয়ে এক সাক্ষাতকারে বলেছিলেন, দুই শসস্ত্র গোষ্ঠী জোটবদ্ধ হওয়ার চেষ্টা করছে। তবে কোনও পক্ষই সে খবর স্বীকার করেনি।

গার্ডিয়ানের খবরে বলা হয়েছে, গত আগস্টে আলজেরিয়ায় আল কায়েদা যোদ্ধারা আইএস যোদ্ধাদের নিয়োগ দেওয়ার কাজ শুরু করে। নিরাপত্তা সূত্রের বরাতে সংবাদমাধ্যমটি বলেছে, আইএস সংশ্লিষ্ট দশ যোদ্ধা আল কায়েদায় যোগ দেওয়ার পর সংগঠন সংশ্লিষ্ট ইসলামিক স্কলাররা বিতর্ক শুরু করেন। আর সেপ্টেম্বরে সিরিয়াতেও আইএস থেকে আল কায়েদায় যোগ দেওয়ার খবর দিয়েছে তারা।

উত্তর আফ্রিকার সাহেল এলাকার আল কায়েদার এক ঊর্ধ্বতন কমান্ডারের অনুগত যোদ্ধারা গত অক্টোবরে নাইজারে মার্কিন স্পেশাল ফোর্সের চার সেনাকে হত্যা করে। ওই সময়ে আল কায়েদার সমর্থক ইয়েমেনের একটি সংবাদমাধ্যম জানায়, অনেক আইএস যোদ্ধা ‘অনুতপ্ত’ হয়ে আল কায়েদায় যোগ দিচ্ছে। আফগানিস্তানে আইএস যোদ্ধারা কৌশলগত গুরুত্বপূর্ণ ঘোর প্রদেশে তালেবানদের পরাজিত করেছে।

পশ্চিমা নিরাপত্তা বাহিনীগুলো এ ধরনের খবর পর্যালোচনা করে সামনের দিনগুলোতে আইএসের কাছ থেকে কী ধরণের হুমকি আসতে পারে তা খতিয়ে দেখছেন বলে জানিয়েছে গার্ডিয়ান।

Sharing is caring!

Loading...
Open