অপারেশন টোয়াইলাইটে নিহত র‌্যাব-পুলিশের ৩ কর্মকর্তা পাচ্ছেন মরণোত্তর পদক

সুরমা টাইমস ডেস্ক:: সিলেটের শিববাড়ীতে জঙ্গি আস্তানা আতিয়া মহলে অপারেশন টোয়াইলাইট চলাকালে গতবছরের ২৫শে মার্চ সন্ধ্যায় জঙ্গিদের পেতে রাখা বোমা বিস্ফোরণে নিহত র‌্যাব-পুলিশের ৩ কর্মকর্তাকে মরণোত্তর পদক দেয়া হচ্ছে।

সেদিন প্রথম বোমা বিস্ফোরণের পর র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) গোয়েন্দা ইউনিট প্রধান লেফটেন্যান্ট কর্নেল আবুল কালাম আজাদ, পুলিশের দুই ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম ও আবু কাওছারসহ বোমা ডিসপোজাল টিম তল্লাশি শুরু করে। ঘটনাস্থলের কাছেই পাওয়া যায় আরেকটা বোমা।

লেফটেন্যান্ট কর্নেল আবুল কালাম আজাদ বোম্ব ডিসপোজাল টিমের সদস্যদের নিয়ে বোমাটির কাছে যাওয়ার সাথে সাথেই সেটি বিস্ফোরিত হয়। মারাত্মক আহত হন পুলিশের এই ৩ কর্মকর্তাসহ আরও কয়েকজন।

পরে লেফটেন্যান্ট কর্নেল আবুল কালাম আজাদ, দুই ওসি মনিরুল ইসলাম ও আবু কাওছার মৃত্যুবরণ করেন।

দায়িত্ব পালনের সময় নিহত হওয়ায় এই তিন কর্মকর্তাকে মরণোত্তর বিপিএম পদক দিয়ে সম্মান জানাচ্ছে বাংলাদেশ পুলিশ বিভাগ।

এছাড়া আতিয়া মহলে জঙ্গিদের পুঁতে রাখা বোমা বিস্ফোরণে আহত এসএমপি’র দক্ষিণ সুরমা থানার সহকারী উপ পরিদর্শক (এএসআই) জনি লাল দে পাচ্ছেন পিপিএম পদক।

পুলিশ সদর দফতরের এমন সিদ্ধান্ত নিশ্চিত করে সিলেটের অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) মুহম্মদ আব্দুল ওয়াহাব বলেন, আতিয়া মহলে নিহত র‌্যাব-পুলিশের তিন কর্মকর্তাকে মরণোত্তর বিপিএম পদক দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া পিপিএম পদক পাচ্ছেন এএসআই জনি লাল দে।

সেই সঙ্গে বীরত্বপূর্ণ অবদান স্বরূপ বিপিএম পদক পাচ্ছেন মৌলভীবাজারের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহজালাল ও সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার রাশেদুল ইসলাম এবং হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার বিধান ত্রিপুরা।

Sharing is caring!

Loading...
Open