পাহাড় কাটা পরির্দশনে ইউওনও, কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস জেলা প্রশাসকের

নিজস্ব প্রতিনিধি:: হবিগঞ্জ জেলার ঐতিহ্যবাহী পাহাড়ি অঞ্চল হিসেবে খ্যাত দিনারপুর পরগণায় ফের পাহাড় কাটা শুরু হয়েছে। স্থানীয় প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় পাহাড় কেটে স্থানীয় একটি কোম্পানির মাটি ভরাটের কাজে সরবারহ করা এই পাহাড়ের মাটি । এতে করে কয়েক শতাব্দির ঐতিহ্যকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিয়ে মাটি বিক্রি করে কোম্পানির কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে কোটি কোটি টাকা। গত ২০-২৫দিন ধরে হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জের দিনারপুর পরগণার পানিউমদা ইউনিয়নের উড়ার পাড়া নামকস্থানে ৩টি পাহাড় থেকে মাটি কাটা হচ্ছে । এইসব পাহাড় (ডিসি খতিয়ান) আওতাভুক্ত। প্রভাবশালী ভূমি দস্যুদের কারনে বিলিন হয়ে যাচ্ছে ঐতিহ্যবাহী পাহাড়ি অঞ্চল এলাকার দিনারপুর পরগণার কয়েক শতাব্দীর ঐতিহ্য। স্থানীয়রা জানান প্রশাসনকে বার বার বিষয়টি অবগত করা হলে তাদের পক্ষ থেকে জোড়ালো কোনো প্রদক্ষেপ না নেওয়ায় অল্প কিছু দিন বন্ধ থাকার পর জায়গা পরিবর্তন করে ভূমিখেকোরা প্রকাশ্যেই শুরু করেছে পাহাড় নিধন।

এলাকাবাসী সূত্রে আরও জানা যায়,স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রভাবশালী সিন্ডিকেট জড়িত থাকায় সাধারণ মানুষ ভয়ে তাদের বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলছে না । কখনো গভীর রাতে আবার ভোরের সূর্য উদয় হওয়ার আগে আবার কখনো দুপুর কিংবা বিকাল বেলা সবার চোখের সামনে এমন কর্মকান্ড চলে আসছে । পাহাড় কাটায় প্রশাসনের নিরবতা ভাবিয়ে তুলছে শান্তপ্রিয় দিনারপুরবাসীকে। স্থানীয় লোকজন জানান, যেইসব ব্যক্তিরা নিজেদের জনপ্রতিনিধি দাবী করেন সেইসব ব্যক্তিরাই পাহাড় কেটে মাটি বিক্রির টাকায় ভাগ বসান। এদিকে পানিউমদা ইউপির জিনাথ রেজোয়ানা কোম্পানির ভরাটের কাজে পাহাড় কাটার মাটি সরবাহর করা হচ্ছে । মাটি বিক্রি করে টাকা গুলো দেয়া হয় দিনারপুর পরগণার একজন ক্ষমতাসীন,প্রভাবশালী নেতার হাতে। বুধবার সরেজমিনে গিয়ে পাহাড় কাটার স্থান পরির্দশন করেছেন নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ বিন হাসান।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ বিন হাসান জানান, পাহাড় যারা কাটছে তাদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে । পাহাড় কেটে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে কু-চক্রী মহল । এব্যাপারে জেলা প্রশাসক মনীষ চাকমা জানান, পাহাড় কেটে যারা বিলিন করে দিচ্ছে তাদের ছাড় দেয়া হবেনা,সরকারের সম্পদ যারা নষ্ট বিলিন করে দিচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ারও আশ্বাস দেন তিনি ।

Sharing is caring!

Loading...
Open