সিলেটের গোলাপগঞ্জে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু!


সুরমা টাইমস ডেস্ক :: সিলেটের গোলাপগঞ্জে প্রিয়াংকা রানী দেব (২৪) নামে এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। সে গোলাপগঞ্জ উপজেলার ঢাকাদক্ষিণ ইউপির দত্তরাইল গ্রামের অরুণ দেব নাথের ছেলে দোবাই প্রবাসী টিটন কুমার দেব (৩৫) এর স্ত্রী ও বিশ্বনাথ থানার সদর ইউপির জানাইয়া গ্রামের দিলিপ কুমার দেবের মেয়ে। স্বামীর বাড়ীর লোকজন বলছে আত্মহত্যা। নিহতের পিতার দাবী তাকে হত্যা করে আত্মহত্যা নাটক সাজিয়ে ঘরের তীরের সাথে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে।

তবে পুলিশ বলছে নিহত প্রিয়াংকাকে গলায় গামছা পেঁচানো তীরে ঝুলানো অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। তবে তার পায়ের নিচে কোন কিছু ছিল না। নিহতের পা মাটিতে লাগানো অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। সকালে খবর পেয়ে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার অপারেশন ইন্সপেক্টর দেলোয়ার হোসেন এসআই মাহবুবুর রহমান নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেন।

নিহতের বাবা দিলিপ কুমার দেব বলেন,স্বামীর বাড়ীর লোকজন আমার মেয়েকে দীর্ঘদিন থেকে নির্যাতন চালিয়ে আসছিল। সোমবার রাত সাড়ে ৯টায় আমার মেয়ের সাথে মোবাইলে শেষ আলাপ হয়। মঙ্গলবার সকাল ৮টায় আমার মেয়ের জামাইর ভাই উজ্জল কুমার দেব মোবাইল ফোনে জানায় আমার মেয়ে খবই অসুস্থ্য। তাকে এক নজর দেখে যাওয়ার জন্য। খবর পেয়ে আমি আমার স্ত্রী জামাইর বাড়ীতে গিয়ে দেখতে পাই পুলিশ আমার মেয়েকে স্বামীর বাড়ী থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে। এ ঘটনায় থানায় লিখিত একটি অভিযোগ দিতে চাইলে পুলিশ জানায় ময়না তদন্ত রিপোর্ট হাতে না পাওয়া পর্যন্ত অভিযোগ নেয়া যাবে না।

উল্লেখ্য, প্রায় সাড়ে ৪বছর পূর্বে দোবাই প্রবাসী টিটন কুমার দেব (৩৫) এর সাথে বিশ্বনাথ থানার সদর ইউপির জানাইয়া গ্রামের দিলিপ কুমার দেবের মেয়ে প্রিয়াংকার বিয়ে হয়। তাদের দাম্পত্য জীবনে অভি নামে সাড়ে ৩ বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। ২২শে ডিসেম্ভর ২০১৭ইং দোবাই থেকে দেশে আসে নিহতের স্বামী টিটন কুমার দেব।

Sharing is caring!

Loading...
Open