শামীমা স্বাধীনকে কাউন্সিলর পদ থেকে বরখাস্ত করতে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে চিঠি ,


সুরমা টাইমস ডেস্কঃঃ সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ১৯, ২০ ও ২১ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর শামীমা স্বাধীনের হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন সিসিকের প্রধান প্রকৌশলী নূর আজিজজুর রহমান। লাঞ্ছিত করার ঘটনায় শামীমা স্বাধীনকে কাউন্সিলর পদ থেকে বরখাস্ত করতে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হবে।

মঙ্গলবার (১৯ ডিসেম্বর) বেলা আড়াইটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

সিসিক কর্মকর্তা-কর্মচারী পরিষদ সূত্রে জানা যায়, উন্নয়নের একটি কাজের প্রসঙ্গে কাউন্সিলর শামীমা স্বাধীন ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজের কক্ষে যান তিনি। প্রকৌশলী এ কাজটি তিনি করে দিতে পারবেন না জানিয়ে বলেন, মেয়র যদি বলেন তাহলে হবে। তখন শামীমা স্বাধীন কথা কাটাকাটি শুরু করেন নুর আজিজের সাথে। একপর্যায়ে তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিতও করেন কাউন্সিলর শামীমা। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে এর প্রতিবাদ বিক্ষোভে ফেটে পড়ে সিসিকের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। এসময় সিসিকের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা কাজ বন্ধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন। এসময় সিসিক মেয়রের পাশের কক্ষে অন্যান্য কাউন্সিলারদের হস্তক্ষেপে কাউন্সিলার শামীমা স্বাধীনকে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়।

এ অভিযোগ তদন্ত সাপেক্ষে সুষ্ঠ বিচারের দাবিতে মেয়রকে ২৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় বেধে দেন কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। এর মধ্যে সুষ্ঠ বিচার না হলে কঠোর আন্দোলনে যাবার ঘোষণা দিয়েছেন সিসিক কর্মকর্তা-কর্মচারী পরিষদ। এদিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে সিসিক ভবনে বিপুল পরিমাণে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

অন্যদিকে, বিকেলে সিসিক কার্যালয়ে মেয়র ও কাউন্সিলরদের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়, প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমানকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় শামীমা স্বাধীনকে কাউন্সিলর পদ থেকে বরখাস্ত করতে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হবে। আগামীকাল বুধবার (২০ ডিসেম্বর) মন্ত্রনালয়ে এ চিঠি প্রেরণ করা হবে বৈঠক সূত্রে জানা যায়।

মেয়র আরিফ বলেন, যে ঘটনা ঘটেছে, তার জন্য আমি দু:খিত। এটি একটি অনাকাঙ্খিত ঘটনা। মহিলা কাউন্সিলর শামীমা স্বাধীনকে বরখাস্ত করতে বুধবার স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে চিঠি প্রেরণ করা হবে।

মেয়র আরিফের এমন বক্তব্যের পর নগর ভবনের বিক্ষুব্ধ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা শান্ত হয়ে কোনো কর্মসূচী প্রদান থেকে বিরত থাকেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open