নগরী থেকে স্ত্রীকে নির্যাতনের দায়ে শিবির নেতা গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক:: সিলেট নগরীর দরগাহ মহল্লার পায়রা ৩নং বাসা থেকে মদন মোহন কলেজের শিবিরের সাবেক সেক্রেটারি জাকির হোসেনকে গ্রেপ্তার করেছে কোতেয়ালি থানা পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার (১৪ই ডিসেম্বর) রাত ৭টার দিকে তার স্ত্রী শাহ রিনা হক মোবাইলফোনে পুলিশের কাছে অভিযোগ করলে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে যায়।

জাকির হোসেন সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার সৈয়দপুর গ্রামের সৈয়দ মোস্তাক হোসেনের ছেলে। সময় পুলিশ তার কাছ থেকে একটি ছোরা ও বিভিন্ন ধরণের চেতনানাশক ঔষধ উদ্ধার করে।

পুলিশ জানায়- সম্প্রতি নেশা করতে শুরু করে জাকির। যার কারণে প্রায় সময়েই স্ত্রীকে নির্যাতন করত। নেশা করার জন্য স্ত্রীর কাছে যৌতুক হিসেবে টাকাও দাবি করত জাকির। আর দাবিকৃত টাকা না পেলে সে নির্যাতন চালাত। গত বুধবার (১৩ই ডিসেম্বর) রাতে তিনি স্ত্রীকে চেতনানাশক ঔষধ খাওয়ানোর চেষ্টা চালান। এসময় তাকে বেধড়ক মারপিটও করেন। মারপিটের সময় জাকিরের হাতে একটি ছোরাও ছিল।

এক পর্যায়ে জাকিরের স্ত্রী কিছুটা সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়লে তার ওপর নির্যাতন বন্ধ করে দেয় জাকির। এরপর বৃহস্পতিবার বিকেলে ওই গৃহিনী কৌশলে বাসা থেকে কোতোয়ালি থানা পুলিশকে অবগত করেন। এরপর জাকির বাসায় গিয়ে পূনরায় নির্যাতন শুরু করলে পুলিশ তখন তাকে গ্রেপ্তার করে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কোতোয়ালি থানার ওসি গৌছুল হোসেন জানান-পুলিশ খবর পেয়ে জাকিরকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে। এসময় তার কাছ থেকে পুলিশ বেশ কিছু চেতনানাশক ঔষধ ও একটি ছোরা উদ্ধার করে। যৌতুকের জন্য তার ওপর নির্যাতন করতেন জাকির। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে নারী নির্যাতন আইনে জাকিরকে একমাত্র আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করবেন।

গৃহিনী রিনা হক জানান- জাকির প্রায়ই তার উপর অতর্কিত নির্যাতন করে। তাদের ঘরে ৪টি সন্তান রয়েছে। প্রায় সময় সে নেশা করে বাসার ফিরত। নেশাগ্রস্থ হয়ে বাসায় ফিরার পর শারীরিক নির্যাতন করত। স্ত্রীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে তাকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন হযরত শাহজালাল (র.) পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এস আই শফিকুল ইসলাম।

Sharing is caring!

Open