নৌ-পুলিশ নদীর জন্য, কিন্তু তারা ডাঙ্গায় বসে থাকে-মায়া

সুরমা টাইমস ডেস্ক:: দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম বলেছেন, মতলব উত্তর ও হাইমচর উপজেলায় মেঘনা নদীতে অবৈধভাবে ড্রেজিং করে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এসব অবৈধ ড্রেজিং বন্ধ করতে প্রশাসনসহ সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। সরকার নদী রক্ষায় কয়েকশ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন। কিন্তু একটি মহল নিজেদের পকেটভারি করার জন্য ভুয়া কাগজপত্র দিয়ে তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। নৌ-পুলিশ নদীর জন্য। কিন্তু আমার কাছে অভিযোগ আছে তারা ডাঙ্গায় বসে থাকে। তাদেরকে বলব, ড্রেজার জব্দ না করে মালিকদের আটক করেন।

রোববার দুপুর ১টায় চাঁদপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলার আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভায় তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, বৃষ্টির কারণ চাঁদপুরের সড়কগুলোর বেহাল দশা। অতিদ্রুত এগুলোকে মেরামত করে জনগণের ভোগান্তি কমিয়ে আনতে হবে। সড়ক ও জনপথ বিভাগ এবং স্থানীয় সরকার বিভাগ এসব সড়কের কাজ দ্রুত করার জন্য ব্যববস্থা গ্রহণ করবেন।

মায়া বলেন, আমরা জনগণের কাছে ওয়াদাবদ্ধ। ২০১৮ সালের মধ্যে ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছাবো। কিন্তু বিদ্যুতের ঠিকাদার সন্ত্রাসরা বিভিন্ন পন্থা অবলম্বন করে গ্রাহকদের কাছ থেকে নগদ অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। এদেরকে প্রতিরোধ করে নির্দিষ্ট সময়ে বিদ্যুৎ বিতরণের কাজ সম্পন্ন করতে হবে।

চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মো. আব্দুস সবুর মণ্ডলের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য ড. মোহাম্মদ শামছুল হক ভূঁইয়া। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আয়েশা আক্তার এর সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য রাখেন, পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার, জেলা পরিষদ চেয়াারম্যান ওচমান গণি পাটওয়ারী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মেয়র নাছির উদ্দিন আহমেদ, নৌ-পুলিশের চাঁদপুর জেলার দায়িত্বরত পুলিশ সুপার সুব্রত কুমার দত্ত, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নারী মুক্তিযুদ্ধা ডা. সৈয়দা বদরুন্নাহার চৌধুরী, সড়ক ও জনপথ বিভাগ চাঁদপুর এর নির্বাহী প্রকৌশলী সুব্রত কুমার দত্ত, এলজিআইডির নির্বাহী প্রকৌশলী জিএম মুজিবুর রহমান প্রমুখ।

Sharing is caring!

Open