তাহিরপুরে ইসলামী মহা সম্মেলনের কথা বলে লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে ,


তাহিরপুর প্রতিনিধি :: তাহিরপুর উপজেলার গুটিলা গ্রামের এক মাওলানার বিরুদ্ধে ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নামে ইসলামী মহা সম্মেলনের কথা বলে লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। আগামী ১৪ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার গুটিলা গ্রামে নামসর্বস্ব প্রতিষ্ঠান খাদিজাতুল কুবরা (রাঃ) নুরানী মহিলা মাদ্রাসার নামে ইসলামী মহাসম্মেলনের কথা বলে মাদ্রাসার খাদিম আল আমিন চাঁদা আদায় করেছেন বলে জানাগেছে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ করে জানান, এ উপজেলার গুটিলা গ্রামে খাদিজাতুল কুবরা (রা.) নুরানী মহিলা মাদ্রসা নামে কোন প্রতিষ্ঠান নেই। মাওলানা আল আমিন বেশ কিছুদিন ধরে পোস্টারে ভারত, মালয়েশিয়া সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তের নামি দামী ইসলামী চিন্তাবিদদের নাম প্রচার করে সম্মেলন করার কথা বলে নিজের পকেট ভারী করার চেষ্টা করছেন।

অভিযুক্ত আল আমিন দায় স্বীকার করে বলেন, ‘এ নামে কোন প্রতিষ্ঠান এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করেনি। স্থানীয় লোকজনদের না জানিয়ে তিনি গুটিলা দক্ষিণ পাড়া মক্তবে কিছু ছাত্র – ছাত্রী দিয়ে যাত্রা শুরু করেছেন। আগামী ১৪ ডিসেম্বর যে সম্মেলন হওয়ার কথা ছিল তা আর হচ্ছে না। পরবর্তীতে গ্রামবাসীদের সাথে পরামর্শ করে নতুন তারিখ নির্ধারণ করবেন বলে জানান তিনি।’

অভিযোগ রয়েছে, বিশ্বখ্যাত আওলাদে রাসুল বিশিষ্ট মুহাদ্দিস সায়্যিদ আরশাদ মাদানী (ভারত) এর নামের সাথে সংগতি রেখে ‘সায়্যিদ এরশাদ আল মাদানী ভারত’ লিখে সম্মেলনের পোস্টার করে মানুষের কাছ থেকে চাঁদা তুলছেন মাওলানা আল-আমিন। ইতিমধ্যে তিনি সম্মেলনের কথা বলে বিভিন্ন জনের কাছ থেকে লাখ টাকা নিয়েছেন। বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে তিনি চাপের মুখে নিজেকে আড়াল করতে ১৪ ডিসেম্বর সম্মেলন না করার কথা জানান ।

উপজেলার দক্ষিণ বড়দল ইউনিয়নের চরগাঁও গ্রামের মাওলানা আবুল কাশেম বলেন, ‘আরশাদ মাদানী নামে ভারতের দেওবন্দের একজন ইসলামী চিন্তাবিদ আছেন কিন্তু এরশাদ আল মাদানী বলে কোন ইসলামী চিন্তবিদ আছেন তা আমার জানা নেই।’

উত্তর বড়দল ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান জামাল উদ্দিন জানান, ‘গুটিলা গ্রামে এ নামে কোন মাদ্রসা নেই। গ্রামের একাধিক লোকজন তাকে জানিয়েছেন মাওলানা আল-আমিন নাম সর্বস্ব প্রতিষ্ঠানের নামে ব্যবহার করে ইতিমধ্যে ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা তুলেছেন। বিষয়টি প্রতারণা ছাড়া আর কিছুনা।

উত্তর বড়দল ইউনিয়ন পরিষদ বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল কাশেম বলেন, ‘আমার জানামতে গুটিলা গ্রামে খাদিজাতুল কুবরা (রাঃ) নুরানী মহিলা মাদ্রসা নামে কোন প্রতিষ্ঠান নেই। শুনেছি মাওলানা আল আমিন ১৪ ডিসেম্বর সম্মেলনের আয়োজন করেছেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open