অলিম্পিক গেমসে নিষিদ্ধ রাশিয়া

সুরমা টাইমস ডেস্ক:: ২০১৮ সালে দক্ষিণ কোরিয়ায় অনুষ্ঠিতব্য শীতকালীন অলিম্পিকে রাশিয়াকে নিষিদ্ধ করেছে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি)।

আইওসি এক বিবৃতিতে জানায়, পিয়ংচ্যাং এ আসন্ন অলিম্পিক গেমসে রাশিয়ান অলিম্পিক কমিটিকে (আরওসি)বরখাস্ত করা হয়েছে। তবে ‘কঠোর শর্তাধীনে’ রাশিয়ার অ্যাথলেটরা আসরে অংশগ্রহণ করতে পারবে।

রাশিয়ায় ডোপিং বিরোধী আইনের মারাত্মক ব্যত্যয় ঘটায় গত ১৭ মাসের তদন্ত শেষে দেশটির বিরুদ্ধে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ২০১৪ সালের অলিম্পিক থেকে ডোপিং নিয়ে অভিযোগ ওঠে রাশিয়ার বিরুদ্ধে।

আইওসি’র প্রেসিডেন্ট থমাস বাচ বলেন,’অলিম্পিক গেমসের মর্যাদা রক্ষার্থে এটি এক অভূতপূর্ব সিদ্ধান্ত।’

রাশিয়ার ক্রীড়া মন্ত্রী ভিতালি মুটকো এবং সহকারী মন্ত্রী ইউরি নাগরনিককেও আজীবনের জন্য অলিম্পিক গেমসে নিষিদ্ধ করা হয়।

আরওসি’র প্রেসিডেন্ট অ্যালেক্সান্ডার যুকভকেও আইওসি সদস্য হিসেবে বরখাস্ত করা হয়। ২০২২ সালের বেইজিং এর অলিম্পিক গেমসের কমিশন কোঅরডিনেটের দায়িত্ব থেকেও সরিয়ে দেয়া হয়েছে রাশিয়ার সোছি অলিম্পিক অর্গানাইজিং কমিটির সিইও দিমিত্রি চেরনেশেনকোকে।

২০১৬ সালে এক প্রতিবেদনে বিশ্ব ডোপিং বিরোধী এজেন্সি (ডব্লিওএডিএ) জানায়, রাশিয়ার এক হাজারও বেশি অ্যাথলেটের বিরুদ্ধে ডোপিং নেয়ার অভিযোগ রাষ্ট্রীয়ভাবে গোপন করা হয়েছে বলে অভিযোগ জানানো হয়।

২০১২ সালের অলিম্পিক, ২০১৩ সালের বিশ্ব অ্যাথলেট চ্যাম্পিয়নশিপ এবং ২০১৪ সালের শীতকালীন অলিম্পিকে ডপিং নিয়ে রাশিয়ার অ্যাথলেটরা অংশগ্রহণ করেন। এর আগে একই অভিযোগে ২০১৬ সালের প্যারা অলিম্পিক গেমসে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল রাশিয়ার অ্যাথলেটদের।

Sharing is caring!

Loading...
Open