“প্রিয়নবী (সা.)-এর শ্রেষ্ঠত্বের প্রতি বিশ্বাস রাখা ঈমানের অঙ্গ”

সুরমা টাইমস ডেস্ক:: বিশিষ্ট আলিমে দ্বীন, শামসুল উলামা হযরত আল্লামা ফুলতলী ছাহেব কিবলাহ (র.)’র সুযোগ্য ছাহেবজাদা আল্লামা মুফতী গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী ফুলতলী বলেছেন- বিশেষ কারণে কোনো কোনো মাস বরকতময় হয়। যেমন শবে কদরের কারণে রমদান মাস বরকতময়। অনুরূপভাবে রাসূলেপাক (সা.)-এর জন্মের কারণে রবিউল আউয়াল মাস বরকতময়। তাঁর মাতৃগর্ভে তাশরীফ আনার রাত হিসেবে জুমআর রাত বরকতময়। ইমাম আহমদ (র.) রাসূলে পাক (সা.)-এর মাতৃগর্ভে তাশরীফ আনার রাত হিসেবে জুমআর রাতকে শবে কদরের উপর স্থান দিয়েছেন। রাসূলে পাক (সা.)-এর সংশ্লিষ্ট সবকিছু বরকতময় ও শ্রেষ্ঠ। তিনি চল্লিশ বছর বয়স থেকে নবী নন বরং বরং সৃষ্টির শুরু থেকে নবী। জন্ম, বংশ মর্যাদা ও ব্যক্তিসত্ত্বা সব দিক থেকে তিনি সর্বশ্রেষ্ঠ। তাঁর এ শ্রেষ্ঠত্বের প্রতি বিশ্বাস রাখা ঈমানের অঙ্গ। এর প্রতি কটাক্ষ করলে ঈমান নষ্ট হয়ে যাবে। তিনি পবিত্র কুরআনের আয়াত উদ্ধৃত করে বলেন- নবী করীম (সা.) আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের নির্দেশ মুতাবেক তাঁর উপর আল্লাহ প্রদত্ত সকল নেয়ামত বর্ণনা করে গেছেন। মুমিনদের জন্য এ নিয়ামতের আলোচনা করাও উচিত। যুগশ্রেষ্ঠ উলামা মুহাদ্দিসীন প্রিয়নবীর মীলাদ ও তাঁর সুমহান মর্যাদার কথা আলোচনা করে গেছেন। তিনি শাহ আব্দুল হক মুহাদ্দিসে দেহলভী (র.)-এ বক্তব্যের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, যুগ যুগ ধরে মুসলমানগণ সর্বদা রাসূল (সা.)-এর জন্মের মাসে মাহফিলে মীলাদুন্নবী করে আসছেন। মাহফিলে মীলাদের সাথে তারা সুস্বাদু খাবার পাকাতেন, রবিউল আউয়ালের রাতসমূহে বিভিন্ন ধরনের দান-খয়রাত করতেন, আনন্দ প্রকাশ করতেন, অধিক নেক আমল করতেন, নবী করীম (সা.) এর জন্ম বৃত্তান্ত পাঠ করতেন। সুতরাং হিংসা কিংবা অজ্ঞতাবশত এসবের বিরোধিতা করা উচিত নয়।

তিনি গতকাল শুক্রবার (০১লা ডিসেম্বর) বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহ’র উদ্যোগে সিলেট রেজিস্ট্রারি মাঠে অনুষ্ঠিত মাহফিলে মীলাদুন্নবীতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

মাহফিলে মীলাদুন্নবী বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক অধ্যক্ষ মাওলানা মঈনুল ইসলাম পারভেজের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব মাওলানা আজির উদ্দিন পাশা ও মাওলানা বেলাল আহমদের যৌথ পরিচালনায় মাহফিলে প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহ’র সভাপতি মাওলানা হুছামুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী।

সংগঠনের মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা একেএম মনোওর আলীর উদ্বোধনী বক্তব্যের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত মাহফিলে বিশেষ অতিথি ছিলেন- সোবহানীঘাট হযরত শাহজালাল দারুচ্ছুন্নাহ ইয়াকুবিয়া কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা কমরুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী, বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির সভাপতি এডভোকেট মাওলানা আব্দুর রকিব, রাখালগঞ্জ সিনিয়র মাদরাসার সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা হবিবুর রহমান, ইকড়ছই আলিম মাদরাসা অধ্যক্ষ মাওলানা ছমির উদ্দিন, সৎপুর দারুল হাদিস কামিল মাদরাসার উপাধ্যক্ষ মাওলানা ছালিক আহমদ।

মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন- আনজুমানে আল ইসলাহ’র কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা ছরওয়ারে জাহান, প্রচার সম্পাদক অধ্যক্ষ মাওলানা জ.উ.ম আব্দুল মুনঈম মনজলালী, অর্থ সম্পাদক উপাধ্যক্ষ মাওলানা আবু সালেহ মো. কুতবুল আলম, প্রশিক্ষণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মাওলানা আবু জাফর মুহাম্মদ নুমান, শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মাওলানা নজমুল হুদা খান, অফিস সম্পাদক মাওলানা আতাউর রহমান, মুসলিম হ্যান্ডস বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার মাওলানা গুফরান আহমদ চৌধুরী ফুলতলী, তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সভাপতি রেদওয়ান আহমদ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ মুহিবুর রহমান, সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি মো. আলমগীর হোসেন, মাওলানা হাফিয নজীর আহমদ হেলাল, মাওলানা মুহাম্মদ ফখরুল ইসলাম, আনজুমানে আল ইসলাহ ইউএসএর সহ-সভাপতি ডা. আবুল খায়ের, বিশিষ্ট আলিমে দ্বীন মাওলানা মুজিবুর রহমান ভাদেশ্বরী, বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহর কেন্দ্রীয় সদস্য মাওলানা রফিকুল ইসলাম খান, মাওলানা আজিজুর রহমান ধনপুরী, সিলেট মহানগর সভাপতি আলহাজ্জ শাহজাহান মিয়া, সিলেট জেলা সহসভাপতি হাফিয তরীকুল ইসলাম তোফা, মাওলানা শেহাব উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মাওলানা শোয়াইবুর রহমান, সুনামগন্জ জেলা সহ-সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মাহবুবুর রহমান তাজুল, মৌলভীবাজার জেলা সদস্য ও সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজ মাওলানা আলাউর রহমান টিপু।

অন্যান্যের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন- সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম সিলেট মহানগরী সহ-সভাপতি মাওলানা আব্দুর রহমান সিদ্দিকী, গোয়ালাবাজার শাহজালাল সিনিয়র মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আমিরুল ইসলাম, সোনাতলা আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা হাফিজুর রহমান, বিশ্বনাথ আলিয়া মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা নুমান আহমদ, মাদারবাজার আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ ড. মাওলানা সৈয়দ শহীদ আহমদ বোগদাদী, হাউসা আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আজিজ আহমদ, তেলিকোণা আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আবু তাহির হোসাইন, মিয়ারবাজার শাহচান্দ শাহকালু আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুল মুক্তাদির খান, চকবাজার আলিম মাদরাসার উপাধ্যক্ষ মাওলানা ছাদিকুর রহমান শিবলী, বরায়া উত্তরভাগ আলিম মাদরাসার উপাধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুস সবুর, তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি দুলাল আহমদ, সহ সাধারণ সম্পাদক হুমায়ূনূর রহমান লেখন ও সাংগঠনিক সম্পাদক আখতার হোসাইন জাহেদ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাফিয কাওছার আহমদ প্রমুখ।

Open