ওসমানী হাসপাতালে রোগির স্বজনদের উপর সন্ত্রাসীদের অতর্কিত হামলা-আহত ১

সুরমা টাইমস ডেস্ক:: সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রোগির স্বজনদের উপর অতর্কিত হামলা করেছে এক দল সন্ত্রাসী। আজ শনিবার বিকেলে ৪টায় হাসপাতালের ৪র্থ তলা ৪নং ওয়ার্ডে ঘটনাটি ঘটেছে। এতে রোগির স্বজন শেখ সম্রাট এর উপর ছুরিকাঘাত করে গুরুতর আহত করে পালিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা। তখন ওয়ার্ডের অবস্থানরত লোকজন তাকে উদ্ধার করে অত্র হাসপাতালে ভর্তি করেন।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, ছাতক উপজেলার পালপুর গ্রামে থেকে কিছু লোক আহত অস্থায় ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন, আহত ব্যক্তিকে তার স্বজন হিসাবে দেখতে আসলে হঠাৎ করে একদল সন্ত্রাসীরা তার উপর হামলা করে পালিয়ে যায়। এবং হাসপাতালে আসবাপত্র ভাংচুর করা হয়। এই ঘটনায় হাসপাতালে অন্যান্য রোগি ভয়ে আতংকের মধ্যে অছে বলে অভিযোগ করেন রোগি স্বজনরা। আহত ব্যক্তি শেখ সম্রাট জানান, আমার স্বজন আব্দুল জব্বারকে আমি ওসমানী হাসপাতালের ৪র্থ তলার ৪নং ওয়ার্ডে দেখতে আসি, তখন হঠাৎ করে আলমগীর, শিবলু, জুয়েল, শিপন, মাহমুদুর রহমান জুয়েল, সমছু, মজিদ, কামালসহ ১০/১২জন সন্ত্রাসীরা আমার উপর হামলা চালায়,

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পালপুর গ্রামের পূর্ব বিরোধের জেরধরে নুরুল আলম‘র দোকানে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট করে একই গ্রামের –শিপন, কাশেম, আজিজুর রহমান আজি, কামাল, মাহমুদুর রহমান জুয়েল, জব্বার আলী, মোক্তার, আল-আমিন, আলী হোসেন,কয়েছ, আলাউদ্দন, রাকিব আলী, সাব্বির, সমছু, শিবলু, হাসান, ওসমান, আনোয়ার, দিলোয়ার, মজিদ, লতিফ,সাহাদত আলী, এমদাদ, জগলু ও অপুসহ বেশ কয়েকজন লোক নিয়ে হামলা ভাংচুর চালায় এসময় তাদেরকে প্রতিহত করা হলো উভয় পক্ষের মাঝে সংর্ঘষের ঘটনা ঘটে। এতে গুলি বিদ্ধ হন সামসুল আলম, আরও আহত হন আব্দুল জব্বার, মসাহিদ, নুরুল আলম, ইসলাম উদ্দিন, উকিল মিয়া, সেলিম আহমদকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে সিলেট এম এ জি ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহত মসাহিদ,জানান যে, হামলাকারীরা এলাকার সন্ত্রাসী ও দাঙ্গাবাজ লোক হিসাবে পরিচিত, তাদের বিরোদ্ধে ছাতক থানায় একাদিক মামলা রয়েছে, কিছু দিন আগেইও ১৬৩/১৭ ও ৩৬৫/১৬ নং মামলায় জেল থেকে জামিনে বেরিয়ে এসে, মামলাকারীর লোকজনের উপর মামলা করার প্রতিশোধ হিসাবে হামলা ভাংচুর ও লুটপাট চালায়। এঘটনায় মামলা দায়ের প্রস্তুতি চলছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open