জৈন্তাপুরের আসামপাড়ায় পাথর উত্তোলনে নিষেধাজ্ঞা

নিজস্ব প্রতিনিধি:: সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার আসামপাড়ায় অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন, পরিবেশ বিনষ্টকারী বোমা মেশিন, ও এক্সেভেটর ব্যবহার করে টিলা কেটে ভূমি ধ্বংস করে ভূ-গর্ভস্থ থেকে পাথর উত্তোলনে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন আদালত। গত মঙ্গলবার সিলেট জেলা জজ কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী এএইচ ইরশাদুল হক জনস্বার্থে সিলেটের যুগ্ম জেলা জজ ১ম আদালতে আবেদন করলে আদালত এ নিষেধাজ্ঞা দেন। মামলা নং-৬২/২০১৭ইং।

মামলায় বিবাদীরা হলেন, গোয়াইনঘাট উপজেলার বল্লাঘাট জাফলংয়ের মৃত ঝিনু লামিনের ছেলে হেনরি লামিন ও ব্লু-প্লানেট হসপিটালিটি লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর আরিফুর রহমান গং, সিলেটের জেলা প্রশাসক, জৈন্তাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, জৈন্তাপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও জৈন্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা।

মামলার আদেশে বলা হয়, ‘জৈন্তাপুর উপজেলার আসামপাড়া মৌজার ১৪৫.৫৬ একর ভূমিতে বিভিন্ন মেশিনারীর সহায়তায় ও শ্রমিক নিয়োগের মাধ্যমে টিলা কেটে, গর্ত সৃষ্টি করে ভূ-প্রাকৃতিক ক্ষতি সাধনমূলক পরিবেশ বিনষ্টকারী ইত্যাদি যাবতীয় কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে জনস্বার্থে নোটিশ প্রাপ্তির ১৫ দিনের মধ্যে আদালতে হাজির হয়ে কারণ দর্শানো ও আপত্তি শুনানি না হওয়া পর্যন্ত বিবাদীদের এই ভূমি থেকে কোনো ধরণের পাথর উত্তোলন, টিলা কেটে প্রকৃতির জন্য যাবতীয় ক্ষতিকর কাজ হতে অন্তবর্তীকালীন নিষেধাজ্ঞা প্রদান করা হয়।’

জনস্বার্থে মামলা দায়েরকারী এডভোকেট এএইচ ইরশাদুল হক বলেন-জৈন্তাপুর উপজেলার ভারত সীমান্তবর্তী ‘নো ম্যানস ল্যান্ড’-এর সংলগ্ন টিলা এবং কমলা বাগান দখল করে স্থানীয় প্রশাসনকে ম্যানেজ করে অবৈধভাবে এই এলাকা থেকে পাথর উত্তোলন করাচ্ছেন আসামিরা। এতে করে পরিবেশ-প্রতিবেশের মারাত্মক সংকট দেখা দিচ্ছে। অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন বন্ধ না করলে এলাকার পরিবেশ সংকটাপন্ন হয়ে পড়বে।

Sharing is caring!

Loading...
Open