এমপি কেয়া চৌধুরীর ওপর হামলার মামলায় আসামীদের জামিন নামঞ্জুর

নিজস্ব প্রতিবেদক:: হবিগঞ্জের বহুবল উপজেলার বেদে পল্লীতে সরকারী অনুদানের চেক বিতরণকালে আয়োজিত সমাবেশে এমপি কেয়া চৌধুরী ও উপস্থিত লোকজনের উপর হামলার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় আসামী তারা মিয়া ও সাহেদের আগাম জামিন চেয়ে হাইকোর্টে করা আবেদন নামঞ্জুর করেছেন বিজ্ঞ আদালত।

গত ২২শে নভেম্বর হাইকোর্টে আগাম জামিনের আবেদন করেন তারা মিয়া ও সাহেদের আইনজীবি। পরবর্তীতে ২৭ নভেম্বর শুনানির দিন ধার্য্য করা হয়। গত সোমবার (২৭শে নভেম্বর) এনেক্স বিল্ডিঙয়ের ৭ নং কোর্টে বিচারপতি মোঃ মিফতাহ উদ্দিন চৌধুরী ও বিচারপতি তাহের মোঃ সাইফুর রহমান শুনানিতে অংশগ্রহণ করেন। এসময় বিচারপতিগণ তারা মিয়া ও সাহেদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন।

ডেপুটি এটর্নি জেনারেল শেখ এ কে এম মনিরুজ্জামান কবির জানান, শুনানিতে বিচারপতিগন তারা মিয়া ও আলাউর রহমান সাহেদের জামিন নামঞ্জুর করেন।

শুনানীকালে বিচারপতির দৃষ্টি আকর্ষণ করে ডেপুটি এটর্নি জেনারেল এমন হামলার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, ‘পুলিশের উপস্থিতিতে একজন এমপির উপর যারা হামলা করতে পারে, তাদের কাছে সাধারণ মানুষ মোটেও নিরাপদ নয়’।

প্রসঙ্গত, গত ১০ই নভেম্বর বাহুবলের বেদে পল্লীতে সরকারী অনুদানের চেক প্রদান করতে যান সিলেট-হবিগঞ্জ সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী। ওই অনুষ্ঠানে পুলিশের উপস্থিতে হামলা করে তারা মিয়া, সাহেদ ও তাদের অনুসারীরা। এতে এমপি কেয়া চৌধুরীসহ বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হন।

এই ঘটনায় আহত হওয়া ৫নং লামাতাশি ইউনিয়নের ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পারভীন বেগম বাদী হয়ে তারা মিয়া, আলাউর রহমান সাহেদ, জসীম উদ্দিন ও অজ্ঞাত ১৪/১৫ জনকে আসামী করে গত ১৮ই নভেম্বর বাহুবল মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ( মামলা নং- ০৬/১৯৬, তাং- ১৮-১১-২০১৭ইং)।

এপ্রসঙ্গে বাহুবল মডেল থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুক আলী জানান, মামলাটি বর্তমানে থানা থেকে ডিবিতে হস্তান্তর করা হয়েছে। থানা থেকে সবধরনের সহযোগিতা দেয়া হচ্ছে আসামীদের গ্রেফতারের জন্য। এরমধ্যে ৩নং আসামী জসীম উদ্দিন জেলহাজতে রয়েছে।

এই অবস্থায় তারা মিয়া ও আলাউর রহমান সাহেদ আগাম জামিনের আবেদন করলে আদালত তা নামঞ্জুর করেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open