জামালগঞ্জে কৃষকদের সাথে প্রতারণার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি:: সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জে অসহায় হতদরিদ্র কৃষকদের সাথে প্রতারণার লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গতকাল মঙ্গলবার (২৮শে নভেম্বর) উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন উপজেলার নবগঠিত উত্তর ইউনিয়নের কামিনীপুর গ্রামের মৃত খোয়াজ আলীর পুত্র জাকির হোসেন।

লিখিত অভিযোগে তিনি উল্লেখ করেন- উপজেলার নবগঠিত উত্তর ইউনিয়নের কামিনীপুর গ্রামের মাহবুব আলম, গাউসুল আযম ও মিয়াদ হোসেন প্রতারক শ্রেণির লোক ও পরধনলোভী। অভিযুক্ত মাহবুব আলম তাদেরকে নিয়ে আমাদের গ্রাম ও আশপাশের গ্রামের নীরিহ গরিব অসহায় লোকজনকে ন্যাশনাল ব্যাংকের ফরম দেখিয়ে নগদ ১ লক্ষ টাকা ও ১টি টিনের ঘর দিবে বলে লোভ দেখিয়ে প্রতি লোকের কাছ থেকে নগদ ৩ হাজার টাকা অগ্রিম ১শ’ টাকা ছবির জন্য নিচ্ছে।

অভিযোগে আরো উল্লেখ করেন- আমরা গ্রামবাসী ব্যাংকের ফরমটি দেখতে চাইলে আমাদেরকে দেখতে দেয়না। এতে প্রতিয়মান হয় যে, বিবাদীগণ এলাকার নিরীহ লোকজনের সাথে প্রতারণা করছে।

কৃষকরা যাতে প্রতারণার শিকার না-হয় আর প্রতারকদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আবেদনে জোর সুপারিশ করা হয়।

অভিযুক্ত মাহবুব আলমের ফোন বন্ধ থাকায় তার সহযোগী গাউসুল আযম মোবাইল ফোনে জানান- আমরা কারো কাছ থেকে কোন টাকা নেয়নি, আমরা শুধু এক বড় ভাই বলাতে আমরা তালিকা করতে ও ছবি তুলতে গিয়েছিলাম। ইউএনও সাব না-করাতে আমরা আর কোন কাজ করছিনা।
জামালগঞ্জ উত্তর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রজব আলী বলেন- আমি বিষয়টি জানার পর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে আলাপ করেছি। তারা যেন এ ব্যাপারে কোন কার্যক্রম না-করে তাও জানিয়ে দিয়েছি।

ন্যাশনাল ব্যাংকের সিলেট বিভাগীয় প্রধান মো. লুৎফুর রহমান বলেন- আমাদের ব্যাংকের এ ধরনের কোন কার্যক্রম নেই। আমরা কাউকে কোন ফরমও দেয়নি। কেউ ব্যাংকের নাম ব্যবহার করে থাকলে তাকে আইনের হাতে তুলে দেওয়া হবে।

এ ব্যাপারে জামালগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মনিরুল হাসান বলেন- লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। এ বিষয়ে গতকাল স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে তাদেরকে বারণ করেছি কোন কার্যকলাপ না করার জন্য। বিষয়টি তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Sharing is caring!

Loading...
Open