‘দেশবাসী এরশাদের শাসনামলেই স্বাধীনতার সুফল ভোগ করেছিলো’

নিজস্ব প্রতিনিধি:: জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও জাতীয় কৃষক পার্টির সভাপতি সাহিদুর রহমান টেপা বলেছেন, বঙ্গবন্ধু স্বাধীন বাংলাদেশ উপহার দিয়েছেন, কিন্তু দেশবাসী স্বাধীনতার প্রকৃত সুফল পল্লীবন্ধু এরশাদের শাসনামলেই ভোগ করেছে।

তিনি বলেন, উন্নয়ন বঞ্চিত ঘুমন্ত বাংলাকে উন্নয়নের চাবুক মেরে জাগ্রত করেছেন এরশাদ। তাই উন্নয়নের রাজনীতিতে বিএনপি-আওয়ামী লীগ জাতীয় পার্টির কাছে শিশু।

সোমবার দুপুরে হবিগঞ্জ শহরের সাইফুর রহমান মিলনায়তনে জেলা কৃষক পার্টির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

টেপা বলেন, বিএনপি ও আওয়ামী লীগ জাতিকে কিছুই দিতে পারেনি। উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ক্ষমতায় এসে নিজেদের আখের গোছাতে ব্যস্ত থাকে। তিনি বলেন, এরশাদের চাওয়া-পাওয়ার কিছুই নেই। সেনাপ্রধান ছিলেন, রাষ্ট্রপতি শাসিত সরকারের রাষ্ট্রপ্রধান ছিলেন। তিনি (এরশাদ) দেশকে কিছু দিতে চান। থমকে থাকা উন্নয়নের চাকাকে আবার সচল করতে চান।

তিনি আরো বলেন, জাতীয় পার্টির শাসনামলের ৬ টাকার চাল আজ ৭০ টাকা, ৪ টাকার পেয়াজ একশ টাকা। অথচ এবিষয়ে ক্ষমতালোভী দলগুলো নিশ্চুপ। মানুষের নিরাপত্তা নেই, দ্রব্যমূল্য ক্রয় ক্ষমতার বাইরে। ক্ষমতার লড়াইয়ে গোটা জাতি আজ পিষ্ঠ। এ থেকে পরিত্রাণ পেতে হলে এরশাদকে পুনরায় ক্ষমতায় আনা ছাড়া দেশবাসীর কোনো পথ নেই। তাই দেশবাসীর আকাঙ্ক্ষা পূরণের জন্য দলকে আরো শক্তিশালী করতে হবে।

তিনি দলীয় এমপিদের উদ্দেশ্যে বলেন, নির্বাচন সন্নিকটে, নির্বাচনে পুনরায় জয়লাভ করতে হলে দলীয় কর্মীদের মূল্যায়ন করুন। ভাসমান বা ভাড়া করা কর্মী দিয়ে নির্বাচনে জয়লাভ করা যায় না। জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা অন্যান্য দলের কর্মীদের মত লোভী নয়, তারা অর্থ নয় ভালবাসা চায়।

জেলা কৃষক পার্টির আহবায়ক গাজী মেজবাহ উদ্দিনের সভাপতিত্বে সম্মেলন উদ্বোধন করেন জাতীয় কৃষক পার্টির সাধারণ সম্পাদক মো. নাসির উদ্দিন মামুন। সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য আতিকুর রহমান আতিক, যুগ্ম মহাসচিব শেখ আলমগীর হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক ইসহাক ভূইয়া, যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক লিয়াকত হোসেন চাকলাদার, জেলা জাপার সদস্য সচিব শংকর পাল, জাপা নেতা এমএ মুমিন চৌধুরী বুলবুল, হাজী ফরিদ উদ্দিন প্রমুখ।

Sharing is caring!

Loading...
Open