শোকে বিহবল হয়ে পড়েছে বিয়ানীবাজার পৌরশহরের আনোয়ারের পরিবার,

সুরমা টাইমস ডেস্ক :: শোকে বিহবল হয়ে পড়েছে বিয়ানীবাজার পৌরশহরের মোকাম রোডে শনিবার দুপুরে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে নিহত যুবক। ঘটনার পর থেকে শোকের মাতম চলছে নিহতের পরিবারে। নির্মম এই হত্যাকান্ডে শোকাহত এলাকাবাসীও। পরিবার ও এলাকাবাসীর এখন একটাই দাবী, হত্যাকারীকে গ্রেফতার করে যেন বিচারের মাধ্যমে ফাঁসির ব্যবস্থা করা হয়।

এদিকে রবিবার সকাল ১০ টার সময় পৌর এলাকার সুপাতলাস্থ ওসমানী স্টেডিয়াম মাঠে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে আনোয়ারকে। আনোয়ারের জানাজায় উপজেলা চেয়ারম্যান, পৌর মেয়র, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন শ্রেণীপেশার হাজারো মানুষ শরীক হন।

অপরদিকে ঘটনার একদিন পেরিয়ে গেলেও নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে এখনো থানায় কোন মামলা দায়ের করা হয় নি।

তবে ঘটনার মূল অভিযুক্ত সায়েলকে গ্রেফতারের চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ, এমনটি জানিয়ে বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহজালাল মুন্সী জানান, নিহতের পরিবার থেকে এখনো কোন মামলা দায়ের না হলেও জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ। আটককৃত আজাদ ও পাভেলকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

প্রসঙ্গত, গত শনিবার দুপুরে পৌরশহরের মোকাম রোডে পূর্ব বিরোধের জের ধরে পৌর এলাকার সুপাতলা গ্রামের বাসিন্দা আনোয়ার হোসেন দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হন। গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। এঘটনায় নিহত আনোয়ারের এলাকাবাসী বিয়ানীবাজার – সিলেট সড়ক ব্যারিকেড দিয়ে প্রায় একঘন্টা সড়ক অবরোধ করে রাখলেও উপজেলা চেয়ারম্যান, পৌর মেয়র ও পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপে এলাকাবাসী অবরোধ তুলে নিলেও সন্ধ্যার পর তারা আনোয়ার হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করে জড়িতদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী জানান। নিহত আনোয়ার সুপাতলা গ্রামের সিরাজ উদ্দিন সিরাই মিয়ার পুত্র ও ফ্রান্স আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলী হোসেন’র ছোট ভাই।

Sharing is caring!

Loading...
Open