ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় কিডনি ড্যামেজ মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন ফেঞ্চুগঞ্জের রাফিয়া ইসলাম


সুরমা টাইমস ডেস্ক :: ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় কিডনি ড্যামেজ হয়ে এখন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন ফেঞ্চুগঞ্জের রাফিয়া ইসলাম (৪০)।

বাসায় খাটের কোণায় চোট লাগায় হাতের কনুইয়ে ব্যথা পেয়েছিলেন তিনি। ছুটে যান ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। জরুরি বিভাগের ডাক্তার বিধান সরকারের দেওয়া প্রেসক্রিপশনের ওষুধ সেবনের পরপরই কিডনি রোগে আক্রান্ত হন তিনি। ঘটনার পর পরই তাকে সিলেটের ইবনে সিনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বিধান সরকারের প্রেসক্রিপশন দেখে ইবনে সিনার ডাক্তাররা চমকে উঠেন।

রাফিয়া স্বামী উপজেলার নিজ ছত্তিশ গ্রামের নুরুল ইসলাম হারুন জানান, ফেঞ্চুগঞ্জ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ডাক্তার বিধান সরকার ওইদিন তার স্ত্রীকে ব্যথা কমানোর জন্য কেনিল ইঞ্জেকশন ও ডিপ্রসেলসহ অন্যান্য ৫০০ পাওয়ারের ওষুধ সেবনের জন্য প্রদান করেন, যা সিলেট ও ঢাকার ডাক্তারগণ দেখে চমকে ওঠেন। এমনকি তারা বিধানকে ফোন করে এমন ওষুধ কেন দেয়া হয়েছে তার কারণ জানতে চান।

সিলেটের ইবনে সিনায় প্রায় এক মাস চিকিৎসার পর রাসিয়া ইসলামের অবস্থার অবনতি হলে দ্রুত তাকে ঢাকার মিরপুরের কিডনি ফাউন্ডেশন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

শনিবার সেখানকার ডাক্তারের বরাত দিয়ে রাফিয়া স্বামী জানান, রাসিয়া ইসলামের একটি কিডনি সম্পূর্ণ ড্যামেজ হয়ে গেছে। অপরটির অবস্থাও ভালো নয়।

এ ব্যাপারে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তার বিধান সরকার বলেন, দুর্ঘটনাজনিত যে কোন ব্যথা নাশকের জন্য কেনিল ইঞ্জেকশন দেওয়া হয়।

অন্যান্য অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, এসব আমার জানা নাই।

Sharing is caring!

Loading...
Open