গোলাপগঞ্জে ছাত্রলীগের দু’পক্ষে দফায় দফায় সংঘর্ষে ১জন আহত ও ৮-১০টি মোটর সাইকেল ভাংচুর,

সুরমা টাইমস ডেস্ক :: গোলাপগঞ্জে ছাত্রলীগের দু’পক্ষে দফায় দফায় সংঘর্ষে ১জন আহত ও ৮-১০টি মোটর সাইকেল ভাংচুর করা হয়েছে। ঘটনার সূত্রপাত উপজেলার লক্ষণাবন্দ ইউপির পুরকায়স্থ বাজারে সোমবার সন্ধ্যায় ৬টার দিকে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানা যায় লক্ষণাবন্দ ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড যুবলীগের ৪৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে পুরকায়স্থ বাজার মাছ হাটায় আলোচনা সভার আয়োজন করে।

আলোচনা সভা শেষ হলে বাজারের পূর্ব দিকে থেকে ঢাকাদক্ষিণ ডিগ্রী কলেজের এজিএস মনছুর গ্রæপের ছাত্রলীগ নেতা হেলু ও সাইদের নেতৃত্বে একটি মিছিল বের করে ক্লাব পয়েন্টের দিকে অতিক্রম করে পুণরায় পুরকায়স্থ বাজার তুতা মিয়ার সমিল সংলগ্ন স্থানে অবস্থান নেয়।

কিছুক্ষণ পর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি খায়রুল হক গ্রæপের নেতা মুকিতলা গ্রামের সাহেদ আহমদ ও মুসলিম পাড়া গ্রামের জুনেদ আহমদের নেতৃতে একটি মিছিল বের করে ক্লাব পয়েন্ট ঘুরে ঢাকাদক্ষিণ বাজারের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হলে পুরকায়স্থ বাজার তুতা মিয়ার সমিল সংলগ্ন এলাকায় আসা মাত্র দু’গ্রæপের সংর্ঘষ বাধে।

সংঘর্ষে ৬-৭টি মোটরসাইলে ভাংচুর করা হয়। এঘটনায় আহত হন খায়রুল গ্রæপের রুমন খান। এসময় ঘটনাস্থলে স্থানীয় মুরব্বীদের বাধার মুখে উভয় গ্রæপ ঢাকাদক্ষিণ বাজার লঞ্চ গল্লিতে অবস্থান নেয়। রাত ৮টায় ঢাকাদক্ষিণে পাল্টাপাল্টি হামলা চালায়।

এসময় গোলাপগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ উভয় পক্ষকে প্রতিরোধ করলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। উভয় পক্ষ নিজ নিজ অবস্থানে থাকতে দেখা গেছে।

গোলাপগঞ্জ মডেল থানা অফিসার ইনচার্য একেএম ফজলুল হক শিবলীর সাথে প্রতিবেদকের কথা হলে তিনি জানান এখন পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। উভয় পক্ষের মুরব্বিরা দায়িত্ব নিয়েছেন যাতে আর কোন সংঘাত না হয়।

Sharing is caring!

Loading...
Open