জৈন্তাপুরে কমিউনিটি পুলিশিং ডে পালিত

নিজস্ব প্রতিনিধি:: সারাদেশের ন্যায় সিলেটের জৈন্তাপুরে কমিউনিটি পুলিশিং ডে যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়েছে। অক্টোবর মাসের শেষ শনিবার “কমিউনিটি পুলিশিং ডে” হিসাবে ঘোষনা করা হয়। পুলিশের সঙ্গে জনসাধারণকে সম্পৃক্ত করে জনসচেতনতা সৃষ্টির মাধ্যমে অপরাধ নিয়ন্ত্রনে পারস্পরিক সহযোগিতা ও অংশিদারিত্বের ভিত্তিত্বে কাজ করার উদ্দেশেই পুলিশের মহাপরিদর্শক এ.কে.এম শহীদুল হক দিবস টি পালন করার সিদ্ধান্ত গ্রহন করেন।

তারই ধারাবাহিতকতায় শনিবার সকাল ১১টায় জৈন্তাপুর মডেল থানার আয়োজনে থানা কম্পাউন্ডার হতে উপজেলার প্রধান প্রধান সড়কে কমিউনিটি পুলিশিং ডে সফলের লক্ষে বিশাল র‌্যালী অনুষ্টিত হয়।

র‌্যালী শেষে জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ খাঁন মোঃ ময়নুল জাকিরের সভাপতিত্বে ও এ.এস.আই তাজুল ইসলামের সঞ্চালনায় থানা কমপ্লেক্স মাঠে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন জৈন্তাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৌরীন করিম।

প্রধান আলোচক হিসাবে বক্তব্য রাখেন কানাইঘাট সার্কেল এস.পি আমিনুল ইসলাম সরকার।

বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মোঃ জাহিদ আনোয়ার, জৈন্তাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাবেক জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি এখলাছুর রহমান, নিজপাট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আতাউর রহমান বাবুল, জৈন্তাপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার হাজী আনোয়র হোসেন, জৈন্তাপুর মডেল থানার সেকেন্ড অফিসার ইন্দ্রনীল ভট্টাচার্জ রাজন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আফতাব আলী, জৈন্তাপুর ষ্টেশন বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আমিনুল ইসলাম সোহেল, জৈন্তাপুর অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি ময়নুল মুরসালিন রুহেল, জৈন্তাপুর ট্রাক চালক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি নুর মিয়া, নিজপাট ইউপি সদস্য মোহাম্মদ ইয়াহিয়া।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জৈন্তাপুরে কর্মরত বিভিন্ন পত্রিকার সাংবাদিক, সমাজসেবী, সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

বক্তারা তাদের বক্তব্যে জানান- পুলিশের সঙ্গে জনগনের অতীতে বেশ দূরত্ব ছিল। কমিউনিটি পুলিশের মাধ্যমে তা ক্রমান্বয়ে কমে এসেছে। আরও যতই কমে আসবে ততই আইন শৃঙ্খলা, সমাজব্যবস্থা উন্নতি সাধিত হবে। পুলিশের কার্যক্রম কোথায় কোথায় ব্যার্থ হয়ে থাকলে সেগুলো শুধরিয়ে আগামীতে পুলিশ গতিশীল করা হবে এজন্য প্রত্যেকে পুলিশে কে সঠিক তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করার আহবান জানান।

বক্তারা বর্তমান অফিসার ইনচার্জ যোগদানের পর হতে জৈন্তাপুরে ব্যাপক হারে অপরাধের মাত্রা কমে আসায় ধন্যবাদ জানান, এছাড়া জৈন্তাপুরের বিভিন্ন স্থানে ভারতীয় শিলং তীরের আস্তানা ধব্বংসের জন্য কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানান।

Sharing is caring!

Loading...
Open