ইতালিতে গণধর্ষণের হাত থেকে তরুণীকে বাঁচালেন বাংলাদেশি আলমগীর

সুরমা টাইমস ডেস্ক:: রাস্তায় একা পেয়ে তরুণীর পথচলা থামাল ২৫ জন বখাটে। এরপর শুরু হয় কুপ্রস্তাব আর অপমানজনক বাক্যবাণে তাকে বিদ্ধ করা। এমন সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলেন ফুল বিক্রেতা আলমগীর। নায়কের মতো ধাওয়া করলেন বখাটেদের। উদ্ধার করলেন ২৫ বছরের ওই তরুণীকে। এরপর খাওয়া-দাওয়া, ছবি ওঠানো। শেষমেশ তার হাতে ফুল তুলে দিলেন তিনি।

এই ফুল বিক্রেতা কিন্তু বাংলাদেশ চলচ্চিত্রের নায়ক আলমগীর নন। আর ঘটনাটিও কোনো বাংলা চলচ্চিত্রের নয়। ঘটনাটি ঘটেছে ইতালিতে।
ইতালিয়ান ওই তরুণীর নাম গাইয়া গুয়ারনত্তা। রাতে ফ্লোরেন্সের অলিগলিতে হাঁটতে আর ছবি তুলতে খুব পছন্দ করেন তিনি। আর নায়কের ভূমিকায় অবতীর্ণ হওয়া ওই ব্যক্তির নাম হোসেইন আলমগীর। ৫৮ বছরের ওই ব্যক্তি ২০০৫ সাল থেকে বসবাস করছেন ইতালিতে। জীবিকা অর্জনের জন্য ফুল বিক্রি করেন।

ঘটনার রাতে ফ্লোরেন্সের পিয়াজা দেলা রিপাবলিকাতে হাঁটাহাঁটি করার সময় গুয়ারনত্তার পথরোধ করে ২৫ জন মদ্যপ তরুণ। তারা তরুণীকে বলল- ‘চলো আমাদের সঙ্গে। ২৫ জনের বিপরীতে তুমি একা। আমাদের সঙ্গে তোমার রাতটা বেশ ভালোই কাটবে। আমরা তোমাকে এত সুখ দেব, যা তুমি সারাজীবনে কখনো পাওনি।

তাদের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গুয়ারনত্তাকে তারা গালাগালিও করে। তিনি পালাতে চেষ্টা করেন কিন্তু পারেননি। নিজেকে খুব অসহায়ে মনে হচ্ছিল তার। এমন সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন বাংলাদেশের আলমগীর।

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে গত ১৫ অক্টোবর গাইয়া গুয়ারনত্তা তার ফেসবুকে আলমগীরের ছবিও পোস্ট করেছেন। আর ইতালিতে নায়কের ভূমিকায় অবতীর্ণ হওয়া আলমগীরের এই ঘটনা সারাবিশ্বে ছড়িয়ে দিয়েছে ইংল্যান্ডের গণমাধ্যম ডেইলি মেইল।

Open