কমলগঞ্জে সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ ও নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিনিধি:: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার পতনঊষার ইউনিয়নের আহমদনগর দাখিল মাদ্রাসার ৭ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ ও নির্যাতনের প্রতিবাদে ছাত্র-ছাত্রী ও এলাকার সচেতন নাগরিকের উদ্যোগে এক মানববন্ধন কর্মসুচী পালিত হয়েছে।

বুধবার সকাল ১১টায় আহমদনগর দাখিল মাদ্রাসা সংলগ্ন রাস্তায় এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। প্রায় ঘন্টাব্যাপী অনুষ্ঠিত ওই মানববন্ধনে উপজেলা সিপিবি সম্পাদক কমরেড সাইফুর রহমানের সভাপতিত্বে ও ছাত্রলীগ নেতা মিতুল খানের সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পতনঊষার ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াছুর রহমান মহরম, রাজদিঘীরপার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ফজলুর রহমান, ছাত্রলীগ নেতা ফয়ছল আহমদ, মনসুর খান, মাও: লুৎফুর রহমান জাকারিয়া, ফাত্তাহ রশিদ, যুবলীগ নেতা আমির আহমদ চৌধুরী, মিজান আনছারী, ইলিয়াছুর রহমান পংকি, তোফায়েল আহমদ প্রমুখ। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, গত ২ অক্টোবর সকাল ৯টার দিকে পতনঊষার ইউনিয়নের নন্দগ্রাম এলাকার আনছার মিয়ার মেয়ে আহমদনগর দাখিল মাদ্রাসার ৭ম শ্রেণির ছাত্রী মাদ্রাসায় আসে। এ সময় মাদ্রাসায় কোন-ছাত্র শিক্ষক না থাকায় ওই ছাত্রীটিকে একা পেয়ে একই মাদ্রাসার দাখিল পরীক্ষার্থী পতনঊষার গ্রামের গ্রামের আতিফ চৌধুরী, দর্গাহপুর গ্রামের আবিদ আলী ও বহিরাগত ছাত্র নোয়াগাঁও গ্রামের মুহিবুর রহমান- এই তিনজন মিলে মুখ বেঁধে মাদ্রাসার নতুন ভবনের বাথরুমে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ ও নির্যাতন করে। পরে মাদ্রাসায় শিক্ষার্থীরা আসা শুরু করলে ধর্ষক নরপশুরা পালিয়ে যায়। বক্তারা অবিলম্বে ধর্ষকদের গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন।

এলাকাবাসী এ ঘটনায় মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের অবহেলাকেই দায়ী করছেন। অভিযুক্ত দুই ছাত্রকে মাদ্রাসা থেকে বহিষ্কার করলেও ঘটনার ১০ দিনেও থানায় কোন মামলা হয়নি। একটি প্রভাবশালী মহল বিষয়টি আপোষ মীমাংসার করার নামে ধামাচামা দেওয়ার চেষ্টায় এলাকার ছাত্র ও সচেতন মহলে ক্ষোভ বিরাজ করছে। ধর্ষিতা শিক্ষার্থী এখন মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মাহমুদুল হক ধর্ষিতা মাদ্রাসা ছাত্রীকে দেখে তার খোঁজ খবর নেন এবং মামলা করার পরামর্শ দেন।
এদিকে ধর্ষণের বিষয়টি টাকার বিনিময়ে আপোষ মীমাংসার কথা বলে একটি প্রভাবশালী মহল প্ররোচনা দিয়ে থানা বা আদালতে মামলা দায়ের করতে দিচ্ছে না বলে অভিযোগ রয়েছে। মাদ্রাসায় ৭ম শ্রেণির ছাত্রীকে থর্ষণের ঘটনা নিয়ে সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিন্দার জড় বইছে। ঘটনার ১০ দিনেও আইনগত ব্যবস্থা না নেওয়ায় পতনঊষার ইউনিয়নের ছাত্র ও যুব সমাজ এই নাক্কারজনক ঘটনায় দায়ীদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে কমলগঞ্জ থানার ওসি মো. বদরুল হাসান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় কোন অভিযোগ আসেনি। তবে পুলিশ মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে গিয়ে ধর্ষিতা মেয়েটির ডাক্তারি পরীক্ষাসহ থানায় মামলা দেয়ার জন্য ধর্ষিতার পরিবারকে বলা হয়েছে। মামলা হলে তাৎক্ষনিকভাবে আসামীদের দ্রæত গ্রেফতার করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Sharing is caring!

Loading...
Open