হবিগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধাকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতেও কার্পন্য!

নিজস্ব প্রতিনিধি:: হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং উপজেলার ৮নং খাগাউড়া ইউনিয়নের তাজপুর গ্রামের বাসিন্দা বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আব্দুল হকের মৃতদেহ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফনের সময় মৃতদেহের উপর জাতীয় পতাকা না দিয়ে বিছানা চাদর দিয়ে গার্ড অব অনার প্রদান করেছে পুলিশ। বিষয়টি এলাকাবাসী তথা উপজেলার সব মুক্তিযোদ্ধাদের মনের ক্ষোভের সঞ্চার করেছে।

মঙ্গলবার (৩রা অক্টোবর) মৃত মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হকের পুত্র মো. মিজানুর রহমান এ অপমানবোধের প্রতিকার চেয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। পাশাপাশি অভিযোগের অনুলিপি প্রধানমন্ত্রী, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়, মুক্তিযোদ্ধা কেন্দ্রীয় কাউন্সিল, বিভাগীয় কমিশনার, জেলা কমান্ডার ও জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালকের কাছে প্রেরণ করা হয়েছে।

জানা যায়, শনিবার (৩০শে সেপ্টেম্বর) মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হক বার্ধক্যজনিত কারণে তার নিজ বাড়িতে মৃত্যুবরণ করেন। পরের দিন তার নিজ বাড়িতে বিকাল ৩টায় জানাজার নামাজ সম্পন্ন হয়। ৩টা ১০ মিনিটে হবিগঞ্জ পুলিশ লাইনস থেকে আসা একদল চৌকস পুলিশ তাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদা প্রদানের জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ করে।

নিয়ম অনুযায়ী মৃতদেহের উপর জাতীয় পতাকায় আচ্ছাদিত করে গার্ড অব অনার দেয়া হয়। কিন্তু উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কিংবা পুলিশের পক্ষ থেকে কোন জাতীয় পতাকা নেয়া হয়নি।

আশেপাশে কোথাও জাতীয় পতাকা না পেয়ে ঘরের ব্যবহৃত একটি বিছানা চাঁদর এনে কফিনের মধ্যে জড়িয়ে গার্ড অব অনার দেয় পুলিশ। এ বিষয়টি গোটা উপজেলার মুক্তিযোদ্ধাদের কাছে তাচ্ছিল্যের মতো মনে হয়েছে।

এ বিষয়ে বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী অফিসার সন্দ্বীপ কুমার সিংহ জানান, বানিয়াচং থানা পুলিশকে বলা হয়েছিল পতাকা নিয়ে যাওয়ার জন্য কিন্তু ভুলক্রমে তারা পতাকা নেয়নি। এটি অনিচ্ছাকৃত ভুল।

Sharing is caring!

Loading...
Open