মাধবপুরে দু’গ্রামবাসির মধ্যে সংঘর্ষ ইউপি সদস্যসহ আহত ২০

হবিগঞ্জের মাধবপুরে অটোরিক্সার যাত্রি উঠানো নিয়ে দু’গ্রামবাসির মধ্যে দুই দফা সংঘর্ষে ইউপি সদস্য সহ কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন। গুরুতর আহতদের ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ সময় প্রতিপক্ষের হামলায় বেশ কয়েকটি বাড়িঘর ভাংচুর করা হয়। মঙ্গলবার সকালে সুলতানপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহত আব্দুল আউয়াল জানান, সোমবার বিকেলে উপজেলার আদাঐর ইউনিয়নের সুলতানপুর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা মিয়াব আলীর ছেলে অটোরিক্সা চালক সোহেলের সঙ্গে বহরা ইউনিয়নের দিঘিরপাড় এলাকার কয়েকজন অটোরিক্সা (সিএনজি) চালকের ঝগড়া হয়। এ সময় তারা সোহেল কে মারপিট করে। ওইদিন বিকেলে দিঘিরপাড় এলাকার একজন অটোরিক্সা চালক সুলতাপুর আসলে সোহেলের লোকজন তাকে আটক করে। এ খবর ছড়িয়ে পরলে দিঘিরপাড় গ্রামের লোকজনদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। দিঘিরপাড় গ্রামের লোকজন সুলতানপুর গ্রামে চলে সুলতানপুর গ্রামের লোকজন বাধা দেয় এবং উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে। খবর পেয়ে মাধবপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার এসএম রাজু আহামেদের নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে।

এরই জের ধরে দিঘিরপাড় ও ভাঙ্গারপাড় গ্রামের লোকজন মঙ্গলবার দুপুরে লাটিসোটা নিয়ে সুলতানপুর গ্রামে চলে আসে। এ সময় সুলতাপুর গ্রামের লোকজনদের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ হয়।এতে ইউপি সদস্য আবু মিয়া (৪৫), আব্দুল আউয়াল (৩৫), আব্দুর রউফ(৩০) আহত হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় ইউপি সদস্য আবু মিয়া কে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর আধুনিক হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে মাধবপুর থানা ও মনতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের বিপুল সংখ্যক পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে।
মনতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচাজ(এসআই) কামরুল হাসান জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করতে শট গানের ১৬ রাউন্ড রাবার বুলেট ছুড়া হয়েছে।

মাধবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মোকতাদির হোসেন পিপিএম জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open