আন্তর্জাতিক ম্যাচের জন্য প্রস্তুত সিলেটের ক্রিকেট স্টেডিয়াম

নিজস্ব প্রতিবেদক:: বিশ্বে অন্যতম সৌন্দর্যময় ক্রিকেট ভেন্যু এবং এশিয়ার মধ্যে একমাত্র গ্রিন গ্যালারিসমৃদ্ধ দৃষ্টিনন্দন সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম। যাত্রা শুরুর পরপরই সৌন্দর্যে সবার প্রশংসা কুড়োয় এই স্টেডিয়ামটি।

২০১৪ সালের আইসিসি টি-২০ বিশ্বকাপ ও আইসিসি প্রমীলা টি-২০ বিশ্বকাপ সামনে রেখে স্টেডিয়ামটির সংস্কার করা হয়েছিল ২০১৩ সালে। ২০১৪ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি স্টেডিয়ামটি উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ওই বছর ১৭ই মার্চ টি-২০ বিশ্বকাপের আয়ারল্যান্ড-জিম্বাবুয়ের ম্যাচ দিয়ে যাত্রা শুরু হয়েছিল সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের। যদিও এখন পর্যন্ত খুব বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়নি এখানে। তার প্রধান কারণ ছিলো ২০১৪ সালে টি-২০ বিশ্বকাপের সামনে রেখে তড়িঘড়ি করে প্রস্তুত করা হয় স্টেডিয়ামটি। বিশ্বকাপের পর স্টেডিয়ামের মাঠ ও ড্রেনেজ সিস্টেমের সংস্কারে কাজে হাত দেওয়া হয়। এরপর দীর্ঘ বিরতির পর ২০১৬ সালে প্রথম দিকে অনুর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের তিনটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয় এই স্টেডিয়ামে।

এর পরপরই স্টেডিয়ামটিতে আন্তজার্তিক ম্যাচ আয়োজন সম্ভব না হওয়ার জন্য দায়ী করা হয় স্টেডিয়ামের কম ধারণক্ষমতাকে। দেশের অন্যান্য আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের তুলনায় সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের ধারণক্ষমতা খুবই কম ছিলো (সাড়ে ১৩ হাজার)। টিকেট বিক্রি থেকে আয়ের ব্যাপারটা মাথায় আসলেই তাই বড় ম্যাচের ভেন্যু হওয়ার দৌড়ে পিছিয়ে পড়ে চা বাগানের মনোরম পরিবেশ বেষ্টিত এই স্টেডিয়ামটি।

মূলত এই ব্যাপারটিকে মাথায় রেখেই স্টেডিয়ামের আসনসংখ্যা বাড়ানোয় উদ্যোগ গ্রহন করা হয়। ইতিমধ্যে পূর্বপাশের গ্যালারীর উপর স্টিলের কাঠামো বসিয়ে দোতলা গ্যালারী বানানো হয়েছে, যেখানে বসানো হয়েছে পাঁচ হাজারেরও বেশি চেয়ার। ফলে স্টেডিয়ামের দর্শক ধারন ক্ষমতা এখন ১৮ হাজারেরও বেশী। ফলে এখন থেকে নিয়োমিত আন্তজার্তিক ম্যাচ আয়োজন করতে পারবে সিলেটের এই ভেন্যুটি।

এদিকে ২৮শে সেপ্টেম্বর থেকে স্বাগতিক বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলের সাথে ৫ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের ৪টি ম্যাচ খেলবে আফগানিস্তান অনুর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দল সিলেট আন্তজার্তিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। আফগানিস্তান সিরিজের পরপরই অক্টোবরে বাংলদেশ এ দলের বিপক্ষে আয়ারল্যান্ড এ দলের একমাত্র ৪দিনের ম্যাচের আয়োজকও সিলেটের এই স্টেডিয়াম।সর্বশেষ বছরের মেগা ইভেন্ট বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) শুরু হবে সিলেট থেকে। ৩রা নভেম্বর থেকে ৪দিনে ৮টি ম্যাচের আয়োজন করা হবে সিলেট আন্তজার্তিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম।

এদিকে খেলার জন্য বর্তমানে স্টেডিয়াম পুরোপুরি প্রস্তুত রয়েছে। সিলেট ক্রিকেট স্টেডিয়ামের ভেন্যু ম্যানেজার জয়দ্বীপ দাস জানান, গ্যালারির কাজ শেষে বর্তমানে স্টেডিয়াম সম্পুর্ন প্রস্তুত রয়েছে খেলার জন্য। এখন থেকে সব ধরনের আন্তজার্তিক ম্যাচ আয়োজনে কোন বাধা রাইলো না স্টেডিয়ামটিতে।

তিনি আরো জানান, যেহেতু বিপিএলের এখনও দুই মাসের মত বাকি রয়েছে সেহেতু সামনে অনুর্ধ্ব-১৯ সিরিজ ও এ দলের সিরিজের শেষ মুহুর্তের প্রস্তুতিতে ব্যস্ত রয়েছে মাঠ কর্মীরা।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের আইসিসি টি-২০ বিশ্বকাপে ছেলেদের বিভাগের ৬টি ম্যাচ ও প্রমীলা টি-২০ বিশ্বকাপের ২৮টি ম্যাচ এবং অনুর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশাবকাপের ৩টি ম্যাচের আয়োজক ছিলো সিলেট ক্রিকেট স্টেডিয়ামের । এ ছাড়া বিভিন্ন সময়ে ঘরোয়া ক্রিকেটের বিভিন্ন ম্যাচ আয়োজন হয়েছে।

Open