সিলেট বিএমএ’র উদ্যোগে কেন্দ্রীয় বিএমএ’র নেতৃবৃন্দের সংবর্ধনা

সুরমা টাইমস ডেস্ক:: বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন (বিএমএ)-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাবেক সাংসদ ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন বলেছেন, আওয়ামীলীগ সরকারের যোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের প্রতিটি ক্ষেত্রে অসাধারণ পরিবর্তন সাধিত হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় সরকার বাংলাদেশের স্বাস্থ্যক্ষেত্রে অসামান্য অবদান রাখছে। তাই চিকিৎসকদেরকে আন্তরিকতা এবং ভালোবাসার মাধ্যমে রোগীর সেবাযত্ন করার মাধ্যমে দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে হবে। সরকার ইন্টার্নি চিকিংসক থেকে শুরু করে অনারারী চিকিৎসকদের বেতনভাতা বৃদ্ধি করছে। এছাড়া নতুন করে দেশে ১০০০০ হাজার চিকিৎসক নিয়োগের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করছে। এর মাধ্যমে স্বাস্থ্য ক্ষেত্র অনেক দূর এগিয়ে যাবে।

বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন সিলেট শাখার উদ্যোগে বিএমএ’র নবনির্বাচিত কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন সিলেট শাখার সভাপতি প্রফেসর ডা. রুকন উদ্দিন আহমদের সভাপতিত্বে শনিবার সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজের অডিটোরিয়ামে এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

ডা. মো. আজিজুর রহমান রোমানের সঞ্চালনায়, সিলেট বিএমএ’র সাধারন সম্পাদক অধ্যাপক ডা. মোর্শেদ আহমদ চৌধুরীর স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিএমএ’র কেন্দ্রীয় মহাসচিব ডা. মো. ইহতেশামুল হক চৌধুরী দুলাল, সংবর্ধিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক বিএমএ’র সদস্য ডা. রোকেয়া সুলতানা, বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়-এর ভাইস চ্যান্সেলর ও বিএমএ’র সদস্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান, সংগঠনের সদস্য ও সাবেক মহাসচিব ডা. শফিকুর রহমান, সদস্য ডা. কামরুল হাসান মিলন, সদস্য ডা. মো. জাহিদ হোসেন, ডা. মো. শেখ শহীদুল্লাহ, ডা. কাজী শফিকুল হালীম জিম্মু, ডা. মো. জাবেদ, ডা. হাসানুর রহমান, ডা. বদিউজ্জামান ভূইয়া ডাবলু, ডা. জহুরুল হক সাচ্চু, ডা. পবিত্র কুমার দেবনাথ, ডা. মো. জামাল উদ্দিন চৌধুরী।

জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সিলেট স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক ডা. ইসমাঈল ফারুক, সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে মাহবুবুল হক, জালালাবাদ রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. আবেদ হোসেন, সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. রেজাউল করীম, পার্কভিউ মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. ওসুল আহমদ চৌধুরী, নর্থ ইস্ট মেডিকেল কলেজের পক্ষে প্রফেসর ডা. এ কে এম হাফিজ, হবিগঞ্জ বিএমএর সহ সভাপতি ডা. অশোক রঞ্জন রায়, সুনামগঞ্জ বিএমএর সহ সভাপতি ডা. আব্দুল হক, ডা. মুজিবুল হক, ডা. আবু সাঈদ আব্দুল্লাহ মুকুল, এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদুল হক রিফাত, সেক্রেটারী সজল চন্দ্র চক্রবর্তী, অঙ্গীকার সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক গোষ্ঠীর সভাপতি সৌরভ, সেক্রেটারী হাসান।

সংবর্ধিত অতিথিবৃন্দকে ক্রেস্ট ও ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আব্দুল কাইয়ুম আনসারী, সিলেট নার্সি কলেজের অধ্যক্ষ শিল্পী রানী চক্রবর্তী, ডিপ্লোমা নার্সিং এসোসিয়েশন এর সভাপতি পরিমল বনিক, সেক্রেটারী রেখা রানী বনিক, তৃতীয় শ্রেণি কর্মচারী সমিতি সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজের সভাপতি মোহাম্মদ মাহমুদুর রশীদ দিদার, সেক্রেটারী সুলেমান খান মিল্টন, স্বাধীনতা মেডিকেল টেকনোলজি এসোসিয়েশন-এর সভাপতি কাজী মুনীর, সেত্রেটারী সুজিত ব্যানার্জী, ৪র্থ কর্মচারী সমিতি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল শাখার সভাপতি নজরুল সরকার, সেক্রেটারী ইমরান আহমদ। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মাওলানা আহমদ আলী।

প্রধান বক্তার বক্তব্যে বিএমএ’র কেন্দ্রীয় মহাসচিব ডা. মো. ইহতেশামুল হক চৌধুরী দুলাল, বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্যক্ষেত্রে অবদানের অন্যতম নিদর্শন হল সারা দেশের উপজেলায় স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার জন্য ৫০০০ নার্স নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে, সাথে সাথে ৪০০০০ স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে। এছাড়া দেশের বেশিরভাগ প্রায় শতকরা ষাট ভাগ বেসরকারী কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকদের জীবনমান উন্নয়নের জন্য সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, সরকার ইন্টার্নি চিকিৎসকদের বেতনভাতা দ্বিগুণ বৃদ্ধি করার ব্যাপারে যে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে যাচ্ছে তা স্বাস্থ্যসেবাকে দেশের জন্য আরো নিশ্চিত করে। চিকিৎসকদেরকে রোগীদেরকে নিজের আত্মীয় মনে করে সত্যিকার সেবা প্রধান করতে হবে।

Open